সুশিক্ষা

চুয়েটের স্থাপত্য বিভাগের জুরি সম্পন্ন

????????????????????????????????????

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) স্থাপত্য বিভাগের ১৩ ব্যাচের পঞ্চম সমাপনী জুরি সম্প্রতি সম্পন্ন হয়েছে। আয়োজনের সূচনাপর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.

মোহাম্মদ রফিকুল আলম। স্থাপত্য বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. জিএম সাদিকুল ইসলাম এতে সভাপতিত্ব করেন। বিচারক ছিলেন স্থপতি অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেস, বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের সভাপতি স্থপতি জালাল আহমেদ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের অধ্যাপক স্থপতি ড. কাজী আজিজুল মাওলা ও সহযোগী অধ্যাপক স্থপতি মাহমুদুল আনোয়ার রিয়াদ। বিচারকমণ্ডলীতে আরও ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের অধ্যাপক স্থপতি ড. শেখ সিরাজুল হাকিম ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান পরিকল্পনাবিদ স্থপতি শাহিনুল ইসলাম খান। বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কানু কুমার দাশের সঞ্চালনায় জুরিতে নানা সমসাময়িক বিষয়সহ স্থাপত্যের বিভিন্ন প্রকল্প উপস্থাপন করেন শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা।

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, বাংলদেশের মতো স্বল্পোন্নত দেশে পরিকল্পিতভাবে সুষম উন্নয়নে স্থপতিদের ভূমিকা অপরিসীম ও অপরিহার্য। চুয়েটের স্থাপত্য বিভাগ মানসম্মত স্থপতি তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে। এরই মধ্যে নবনির্মিত শামসেন নাহার খান হল ও টিএসসির আধুনিক ও পরিবেশবান্ধব স্থাপত্যশৈলী এ বিভাগের সক্ষমতা প্রমাণ করেছে।

সূচনাপর্বে স্থপতি অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেস শিক্ষার্থীদের স্থাপত্য পেশায় প্রবেশের জন্য প্রস্তুত হতে বলেন। পাশাপাশি এ ব্যাপারে দিকনির্দেশনাও দেন। স্থাপত্যের শাস্ত্রীয় রূপ কী হওয়া উচিত তার ব্যাখ্যা দেন বক্তব্য ও চিত্রের মাধ্যমে। ভবনে আলো-বাতাসের ব্যবহার, প্রকৃতির প্রতি সংবেদনশীল হওয়া, নগরীর অধিবাসীদের জন্য সমসুযোগ প্রভৃতির ওপর গুরুত্ব দেন তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..