সুশিক্ষা

চুয়েটে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ১২ অক্টোবর

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের লেভেল-১ স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১২ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টা লিখিত পরীক্ষার পরে বিকাল আড়াইটা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টার অঙ্কন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। অনলাইনে আবেদন করা যাবে আগামীকাল থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত।
যোগ্য প্রার্থীদের রোলসহ নামের তালিকা ২৬ সেপ্টেম্বর প্রকাশ করা হবে। মেধানুযায়ী ভর্তির জন্য নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ প্রার্থীদের নামের তালিকা ২৭ অক্টোবর জানানো হবে।
এ বছর নতুন চালু হওয়া দুটি বিভাগে ৩০ জন করে ৬০ শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবে। বিভাগ দুটি হলো ইরড়সবফরপধষ ঊহমরহববৎরহম ও গধঃবৎরধষং ঝপরবহপব ধহফ ঊহমরহববৎরহম।
বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রশাসনিক ভবনের কাউন্সিল কক্ষে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের ১১৪তম (জরুরি) সভায় এসব সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভাপতি ও চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড.
মোহাম্মদ রফিকুল আলম। সভায় অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সব সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
‘এ’ লেভেল পাস ও বিদেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রার্থী ছাড়া অন্যদের আবেদন অনলাইনে গ্রহণ করা হবে। যেসব শিক্ষার্থী ২০১৯ সালে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় পাস করেছে, অথবা ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরের পরে ‘এ’ লেভেল সার্টিফিকেটপ্রাপ্ত হয়েছে, ভর্তি নির্দেশিকার শর্তপূরণ সাপেক্ষে তারাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবে।
বিভিন্ন বিভাগ ও আসন বিভাজন
# ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং  ১৮০ আসন
# মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ১৮০ আসন
# সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং  ১৩০ আসন
# কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ১৩০ আসন
# ইলেকট্রনিকস অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং  ৬০ আসন
# আর্কিটেকচার  ৩০ আসন
# বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং  ৩০ আসন
# ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ৩০ আসন
# মেকাট্রনিকস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং ৩০ আসন
# পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং ৩০ আসন
# আরবান অ্যান্ড রিজিওনাল প্ল্যানিং  ৩০ আসন
# ওয়াটার রিসোর্স ইঞ্জিনিয়ারিং  ৩০।
উল্লিখিত বিভাগের ৮৯০টি আসন ছাড়াও রাখাইন সম্প্রদায়ের জন্য একটি, পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্য জেলার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য ১০টিসহ অতিরিক্ত ১১টি আসন সংরক্ষিত রয়েছে।
বাংলাদেশের যে কোনো মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীকে ২০১৬ অথবা ২০১৭ সালের মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৪.০০ পেতে হবে, অথবা সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড পেতে হবে। উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীকে গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়নের প্রত্যেকটিতে আলাদাভাবে কমপক্ষে গ্রেড পয়েন্ট ৪.০০ ও ইংরেজিতে কমপক্ষে গ্রেড পয়েন্ট ৩.৫০ পেয়ে পাস করতে হবে। গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও ইংরেজিতে মোট গ্রেড পয়েন্ট কমপক্ষে ১৭.৫০। ইংরেজি মাধ্যম ও বিদেশি শিক্ষা বোর্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় ওই বিষয়গুলোয় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড অর্জনধারীরাই আবেদন করতে পারবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.cuet.ac.bd/admission থেকে আবেদন ফরম ডাউনলোড করে নির্ধারিত ফি সভাপতি, ভর্তি কমিটি, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, সিইউইটি শাখা, চট্টগ্রামের অনুকূলে ডিমান্ড ড্রাফ্ট অথবা পে-অর্ডার আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করে রেজিস্ট্রার, চুয়েট, চট্টগ্রাম-৪৩৪৯ ঠিকানায় জমা দিতে হবে। ওই একই ওয়েবসাইট থেকে ভর্তি নির্দেশিকা ২০১৯-২০ ডাউনলোড করা যাবে। এ নির্দেশিকায় উল্লেখিত নিয়মাবলি অনুসরণ করতে হবে।
ভর্তি-সংক্রান্ত নিয়ম-নীতির যে কোনো ধারা ও উপ-ধারার পরিবর্তন, সংশোধন, সংযোজন ও পুনঃসংযোজনের অধিকার কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

 

সর্বশেষ..