সারা বাংলা

চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকদের হামলায় ইউপি সদস্য জখম

প্রতিনিধি, বেনাপোল (যশোর): যশোরের শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মাদক ব্যবসা ও সালিশের টাকা ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে নিজে ও তার দুই ছেলেসহ সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ইউপি সদস্য বাবুল হোসেনকে প্রকাশ্যে জনসম্মুখে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার সকালে স্থানীয়রা গুরুতর আহত বাবুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় বাধা দেন চেয়ারম্যান। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের হস্তক্ষেপে তাকে উদ্ধার করে যশোর কুইন্স হসপিটালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, গোগা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ নিজেই চাঁদাবাজি, ও মাদক ব্যবসায় জড়িত। তারা ছেলে সম্রাট হোসেন একটি মাদক মামলার আসামি।  রশিদ চেয়ারম্যানের ছেলে সম্রাট হোসেনের সঙ্গে একই ইউনিয়নের মেম্বার বাবুল মিয়ার মধ্যে বিভিন্ন অপকর্মের ভাগ বাটোয়ারার হয়। তবে সম্রাট হোসেনের একটি ফেনসিডিলের চালান আটকের জের ধরে দুজনের মধ্যে শত্রুতা দেখা দেয়।

এসব নিয়ে বিরোধের জেরে বাবুলকে চায়ের দোকানে রশিদ চেয়ারম্যান তার ছেলেসহ দলবল নিয়ে হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন।

গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, রশিদ চেয়ারম্যানের ছেলে সম্রাট একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে মাদক ব্যবসার মামলাও আছে শার্শা থানায়।

বাবুল মেম্বারের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন বলেন, ‘আমার স্বামীর মাথায় প্রচণ্ড আঘাতের কারণে যশোর কুইন্স হাসপাতাল থেকে সিটি স্ক্যান করার পর যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..