প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ছিনতাই হওয়া লিবীয় বিমানের মাল্টায় অবতরণ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ১১৮ যাত্রীসহ লিবিয়ার একটি উড়োজাহাজ ছিনতাই হয়েছে। উড়োজাহাজটিকে মাল্টায় অবতরণে বাধ্য করেছে ছিনতাইকারীরা। খবর বিবিসি, রয়টার্স।

লিবিয়ার অভ্যন্তরীণ রুটের এয়ারবাস এ৩২০-এর গন্তব্য পরিবর্তন করে সেটি মাল্টায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। উড়োজাহাজটি আফ্রিকিয়াহ এয়ারওয়েজের। এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ উড়োজাহাজ ছিনতাইয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।
মাল্টার প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাসকাট বলেছেন, উড়োজাহাজটি সম্ভবত ছিনতাই করা হয়েছে। টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে ‘সম্ভাব্য ছিনতাইয়ের শিকার’ উড়োজাহাজটির মাল্টায় অবতরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাল্টার প্রধানমন্ত্রী।
গতকাল শুক্রবার সকালে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের অংশ হিসেবে উড়োজাহাজটি দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সেবহা এলাকা থেকে রাজধানী ত্রিপোলির উদ্দেশে যাত্রা করে। ছিনতাইয়ের পর ছিনতাইকারীরা উড়োজাহাজটিকে প্রতিবেশী দেশ মাল্টায় জরুরি অবতরণে বাধ্য করে।
‘আফ্রিকিয়াহ এয়ারওয়েজের’ এয়ারবাস এ-৩২০ ফ্লাইটটি অপহরণ করে যাত্রীবেশী দুই ছিনতাইকারী। তাদের একজনের হাতে হ্যান্ডগ্রেনেড ছিল। তারা উড়োজাহাজটি উড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দেয়। তবে এখন পর্যন্ত হামলাকারীদের উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানা যায়নি।
মাল্টা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এক টুইটার বার্তায় বলেছে, ওই বিমানবন্দরে বেআইনিভাবে একটি উড়োজাহাজকে অবতরণ করানো হয়েছে। মাল্টার প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাসকাট বলেছেন, দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী বিমানবন্দরে উড়োজাহাজটি ঘিরে রেখেছে।
ঘটনাস্থলে থাকা বার্তা সংস্থা রয়টার্সের একজন ফটোসাংবাদিক বলেছেন, তিনি বিমানবন্দরে সেনাসদস্য ও বিশেষ বাহিনীর বেশ কিছু গাড়ি দেখেছেন।
মাল্টার প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিমানবন্দরে উপস্থিত রয়েছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।
ছিনতাইকারীরা এখনও কোনো দাবি-দাওয়ার জন্য যোগাযোগ করেনি বলে জানিয়েছেন লিজা শহরের ডেপুটি মেয়র মাদজা মাগরি নাউদি। তিনি বলেন, ‘এটা একটা সমস্যা। আমরা জানি না এ মুহূর্তে তারা কী চায়।’