প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

জঙ্গি ছিনতাই, তদন্ত কমিটির সুপারিশের আলোকে ব্যবস্থা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রতিনিধি, গাজীপুর : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আদালত প্রাঙ্গন থেকে দুই জঙ্গি পালানোর ঘটনায় কারো গাফিলতি আছে কি না, তা তদন্ত করতে দুটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির সুপারিশের আলোকে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে গাজীপুর কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে ৬০তম কারারক্ষী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী।

এ সময় কড়া নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রী বলেন, কারাগার থেকে আদালতে কোনো আসামি নেয়া হলে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। আরও বেশি সতর্কতা জরুরি। তিনি বলেন, আদালতপাড়ার ঘটনাটি জঙ্গিদের পূর্বপরিকল্পিত। তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে আত্মগোপনে থাকা জঙ্গিরা তাদের অবস্থান জানান দিতে দুই জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে। তারা যাতে দেশের বাইরে পালিয়ে যেতে না পারে, সে জন্য সীমান্তে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী।

এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ এস এম আনিসুল হক, জিএমপি কমিশনার মোল্লা নজরুল ইসলাম, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও কারা অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ৬০তম ব্যাচ কারারক্ষী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সটির কমান্ড্যান্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কারা ঢাকা বিভাগের উপমহাপরিদর্শক এ কে এম ফজলুল হক। প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র জেল সুপার আমিরুল ইসলাম।