প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

জঙ্গি হামলার কারণে কমেছে প্রকল্প সহায়তার ব্যবহার:পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার কারণে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) প্রকল্প সহায়তার ব্যবহার কমেছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, গত বছরের ১ জুলাই ওই হামলার ঘটনার পর জাপানসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক নিহত হন। ফলে তারা বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যান। এতে করে বিভিন্ন প্রকল্পে বিদেশিদের দেওয়া অর্থের ব্যবহার কমেছে।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে নিজ দফতরে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার পর মেট্রোরেল, পদ্মা সেতু, মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ অন্য যেসব কেন্দ্রে বিদেশিরা কর্মরত ছিলেন, তারা নিজ দেশে চলে গিয়েছিলেন। বিদেশি সহায়তাপুষ্ট প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়নে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। বিশেষ করে জাপানিরা চলে যাওয়াতে বেশ সমস্যা হয়েছিল। তবে ওই ঘটনার পর অর্থমন্ত্রী জাপান সফর করে জাইকাসহ জাপান সরকারের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। ফলে ফের বিদেশিরা আসতে শুরু করেছেন। তাই বৈদেশিক সহায়তা ব্যবহারে আমরা যতটুকু পিছিয়ে আছি, সেটা পূরণ হয়ে যাবে।

মন্ত্রী জানান, ২০০৯-১০ অর্থবছর পর্যন্ত আমাদের বৈদেশিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি ছিল তিন বিলিয়ন ডলারের নিচে। ২০১০-১১ অর্থবছরে তা প্রায় ছয় বিলিয়নের কাছাকাছি উঠে যায়। চলতি অর্থবছর বৈদেশিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি এসেছে ১৪ দশমিক ৬৭ বিলিয়ন ডলারের। বর্তমানে পাইপলাইনে রয়েছে প্রায় ৩৬ দশমিক ৫৪ বিলিয়ন ডলার। তিনি বলেন, বৈদেশিক সহায়তার ব্যবহার কেবল সরকারের ওপর নির্ভরশীল নয়। কারণ সহায়তাপুষ্ট প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে উন্নয়ন সহযোগীরাও অংশীদার হন। তাই তারা যদি বাংলাদেশে অবস্থান না করেন, তাহলে ওইসব প্রকল্পের বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্ত হয়।

পরিকল্পনা কমিশনের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের তথ্যমতে, চলতি অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে ৩৯ হাজার ৯৭৩ কোটি টাকার, যা মোট বরাদ্দের ৩২ দশমিক ৪১ শতাংশ। এর মধ্যে সরকারের তহবিল থেকে ২৫ হাজার ৮৯৯ কোটি এবং প্রকল্প সাহায্য ১০ হাজার ৬০৯ কোটি টাকা। এডিপিতে সরকারের নিজস্ব বরাদ্দ ছিল ৭০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। প্রথম সাত মাসে বাস্তবায়ন হয়েছে ৩৬ দশমিক ৬৩ শতাংশ। আর বৈদেশিক সহায়তা ব্যয় হয়েছে ২৬ দশমিক ৫২ শতাংশ। বৈদেশিক সহায়তার ব্যয় পিছিয়ে থাকা কারণ হিসেবে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার ঘটনাকে দায়ী করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী। আর এ অর্থ ব্যয় পিছিয়ে থাকায় সংশোধিত এডিপিতেও কমানো হচ্ছে বৈদেশিক সহায়তার পরিমাণ। মূল এডিপিতে এটি ৪০ হাজার কোটি টাকা থাকলেও আর এডিপিতে তা কমিয়ে ৩৩ হাজার কোটি টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব করেছে পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগ। আজ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় এ প্রস্তাব উপস্থাপন করা হবে।