বিশ্ব সংবাদ

জাতিসংঘের মধ্যস্থতার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান ভারতের

কাশ্মীর ইস্যু

শেয়ার বিজ ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘ মহাসচিবের দেওয়া মধ্যস্থতার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে ভারত। গত রোববার দিল্লির তরফ থেকে বলা হয়েছে, এর বদলে পাকিস্তান ‘অবৈধভাবে ও জোর করে’ যেসব এলাকা দখল করে রেখেছে, তা খালি করে দেওয়ার দিকে মনোযোগ দেওয়া উচিত। খবর: বিবিসি।

সম্প্রতি পাকিস্তান সফর করেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। ওই সফরে কাশ্মীর নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ভারত ও পাকিস্তান রাজি থাকলে এ ইস্যুতে মধ্যস্থতায় তিনি রাজি আছেন। তবে রোববার ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাবিশ কুমার বলেন, ‘ভারতের অবস্থান বদল হয়নি। জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিল, আছে ও থাকবে। যে ইস্যুতে আলোচনার দরকার, সেটি হলো পাকিস্তান অবৈধভাবে ও জোর করে যেসব এলাকা দখল করে আছে, সেসব এলাকা খালি করা।’ তিনি বলেন, ‘এছাড়া অন্য কোনো ইস্যু যদি থাকে তাহলে আমরা দ্বিপক্ষীয়ভাবে আলোচনা করব। তৃতীয় কোনো পক্ষের মধ্যস্থতার কোনো সুযোগ বা ভূমিকা নেই।’ রাবিশ কুমার বলেন, ভারত আশা করে দিল্লির বিরুদ্ধে পাকিস্তান যে আন্তঃসীমান্ত সন্ত্রাস চালাচ্ছে, তার ওপর জোর দেবেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর আত্মঘাতী হামলা চালানো হলে দিল্লি ও ইসলামাবাদের সম্পর্কে নতুন করে চিড় ধরে। এছাড়া আগস্টে কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিলের পর পাকিস্তানের চালানো তৎপরতাও দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি ঘটায়।

উল্লেখ্য, পরমাণু শক্তিধর দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তান উভয়ই কাশ্মীরকে নিজেদের বলে দাবি করে। ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা পাওয়ার পর দুই প্রতিবেশীর তিনটি যুদ্ধের মধ্যে দুটি সংঘটিত হয়েছে কাশ্মীর ইস্যুতে। এক সামরিক নিয়ন্ত্রণরেখা দিয়ে কাশ্মীরকে বিভক্ত করে রাখা হয়েছে। ভারতের শাসনে রয়েছে ৪৫ শতাংশ এলাকা আর পাকিস্তান শাসন করে ৩৫ শতাংশ অঞ্চল। আর বাকি অঞ্চল শাসন করে চীন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..