বাণিজ্য সংবাদ

এসডিজি অর্জনে সহযোগিতা বৃদ্ধির আশ্বাস জাতিসংঘের

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘জাতিসংঘ ঘোষিত সাসটেইন্যাবল ডেভেলপমেন্ট গোল (এসডিজি) অর্জনে বাংলাদেশ পরিকল্পিত ও সফলভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। এমডিজি সফলভাবে অর্জন করে বাংলাদেশ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ঘোষিত সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা সফলভাবে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। এর ফলে এসডিজির ৮২ শতাংশ বাস্তবায়িত হবে ২০৩০ সালের মধ্যে। বাংলাদেশ পদ্মা সেতুসহ অনেক মেগা প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে’ বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

সচিবালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটর ও ইউএনডিপির রেসিডেন্ট রিপ্রেজেনটেটিভ রবার্ট ডি. ওয়াটকিনসের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে গতকাল সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ সহজ করতে রাস্তাগুলো ফোর লেনে রূপান্তর করা হচ্ছে। দেশে এখন ফরেন ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্টের (এফডিই) পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২০১৮ সালের পর দেশে আর গ্যাস সমস্যা থাকবে না, বিদ্যুৎ পর্যাপ্ত আছে। অনেক দেশ এখন বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে আসছে। সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করছে বিশ্ববাসী। দেশের শ্রমিকদের অধিকার রক্ষা ও কর্মবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করে গ্রিন ফ্যাক্টরি গড়ে উঠছে বাংলাদেশে। জাতিসংঘের সহযোগিতায় বাংলাদেশ আরও দ্রুত এগিয়ে যাবে।’

তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, ‘দেশে সঠিক পদ্ধতিতে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। আগামী সাধারণ নির্বাচন দেশের সংবিধান মোতাবেক অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্বের গণতান্ত্রিক দেশগুলোতেও চলমান সরকারের অধীনেই জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তখন নির্বাচনকালীন সরকার থাকে এবং নিয়ম মোতাবেক কার্যসম্পাদন করে। নির্বাচন নিয়ে বার্গেনিং বা আলোচনার আর কোনো সুযোগ নেই, বিএনপির উচিত নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়া। আমি বিশ্বাস করি, বিএনপি আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। দেশে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। জাতিসংঘ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্ববাসী বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে। বাংলাদেশ সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রম পরিচালনায় বদ্ধপরিকর। দেশের মানুষ সচেতন হয়েছে, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশের মাটিতে সন্ত্রাসীদের আশ্রয় হবে না।’

জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটর ও ইউএনডিপির রেসিডেন্ট রিপ্রেজেনটেটিভ রবার্ট ডি. ওয়াটকিনস বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়ন চোখে পড়ার মতো। অন্যান্য দেশ বাংলাদেশের উন্নয়ন অনুসরণ করতে পারে। বাংলাদেশ সফলভাবে এমডিজি অর্জন করেছে, এসডিজি অর্জনেও সফল হবে। জাতিসংঘ চায় বাংলাদেশ সঠিক পথে এগিয়ে যাক। এজন্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা করবে জাতিসংঘ। বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করবে এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবেÑজাতিসংঘ তা প্রত্যাশা করে।’

সর্বশেষ..