জালালাবাদের পর কাবুলে শক্তিশালী বিস্ফোরণ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে দুটি শক্তিশালী বিস্ফোরণে হয়েছে। গতকাল শনিবারের বিস্ফোরণে বেশ কয়েকজন আহত হন। প্রথম বিস্ফোরণ পশ্চিম কাবুলের দাস্ত-ই-বারচি জেলায় ঘটে। এতে একাধিক বেসামরিক আফগান আহত হন। দ্বিতীয় বিস্ফোরণ একই জেলায় হলেও কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। খবর: স্পুতনিক, বিবিসি।

এদিকে একইদিন আফগানিস্তানের জালালাবাদ শহরেও একাধিক বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। তালেবান কর্মকর্তাদের বহনকারী গাড়িতে বিস্ফোরণে কমপক্ষে তিনজন নিহত হন। আহত হয়েছেন আরও ২০ জন।

জালালাবাদ প্রশাসন জানিয়েছে, স্থলমাইনের আঘাতে দুই তালেবান কর্মকর্তা ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। এর দায় স্বীকার করেনি কেউ। তালেবান ক্ষমতা দখলের পর প্রথমবার তাদের ওপর হামলা হলো। জড়িতদের আটক করতে অভিযানে নেমেছে তালেবান প্রশাসনের নিরাপত্তা বাহিনী।

তালেবানের কাছ থেকে চিঠি পেয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব: এদিকে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, তিনি তালেবানের কাছ থেকে একটি চিঠি পেয়েছেন। এ চিঠিতে তালেবান উল্লেখ করেছে, তাদের সদস্যরা জাতিসংঘের কর্মীদের সুরক্ষা দেবেন। এছাড়া নারী অধিকার নিয়েও কথা বলেছে তারা।

গুতেরেস বলেন, তালেবানের সঙ্গে এসব ইস্যুতে গঠনমূলক ও ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। এসব ইস্যুতে তালেবান বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তিনি বলেন, ‘ত্রাণ সহায়তা নিয়ে তালেবানের সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে।

ছেলেদের জন্য স্কুল খুলছে: এদিকে ছেলেদের জন্য গতকাল থেকে আফগানিস্তানের স্কুলগুলো খুলে দেয়া হয়েছে। এর আগে শুক্রবার বিবৃতিতে স্কুল খোলার ঘোষণা দিয়েছিল তালেবান সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে মেয়েরা কবে নাগাদ শ্রেণিকক্ষে ফিরতে পারবে কিংবা আদৌ ফিরতে পারবে কি না মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সে সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি।

তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর কিছু স্কুল তাদের কার্যক্রম পরিচালনার বন্দোবস্ত করতে পেরেছে। ষষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত মেয়ে শিক্ষার্থীরাও স্কুলে যাচ্ছে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নারী শিক্ষার্থীদের ক্লাস করতে দেখা গেছে। তবে গোটা আফগানিস্তানজুড়ে উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো এখনও খুলে দেয়া হয়নি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শনিবার থেকে দেশের সব সরকার-বেসরকারি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সঙ্গে মাদরাসাগুলো আবার তাদের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে পারবে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষক এবং ছেলে শিক্ষার্থীরা ওইদিন থেকে তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠাতে যেতে পারবেন।

সর্বশেষ..