প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

জুতা সেলাইকারী বন্ধুর সঙ্গে আড্ডায় মাশরাফি, ছবি ভাইরাল

নিজস্ব প্রতিবেদক: গাছতলায় বসে আছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। তার পাশে জুতা সেলাই করছেন এক যুবক। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে এমনই এক ছবি। প্রথমদৃষ্টিতে দেখলে মনে হবে হয় নিজের জুতোজোড়া সেলাই করতে দিয়ে পাশে বসে আছেন নড়াইল এক্সপ্রেস। কিন্তু না। এই জুতো সেলাইকারী যে সে সেলাইকারী নয়। তিনি যে নড়াইল এক্সপ্রেসের বন্ধু রবি দাস। আর সেখানে মাশরাফি জুতো সেলাইতে নয়, বরং বসেছিলেন বন্ধুর সাথে আড্ডা দিতে।

এই দুই বন্ধুর একটি ছবি বেশ ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এতে দেখা যায়, বটগাছের নিচে জুতা সেলাই করছেন রবি, চারপাশে ছড়ানো পুরোনো ও ছেঁড়া জুতা। পাশেই হুডি ও মাস্ক পরে পায়ের ওপর পা তুলে পাশে বসে গল্পে মজেছেন মাশরাফি।

মাশরাফীর বন্ধুসুলভ মনোভাবের কথা আগে থেকেই তার ভক্তদের জানা। সেটা মানুষ হোক, ক্রিকেটার হোক কিংবা সংসদ সদস্য— মাশরাফির কোনো ব্যতিক্রম নেই। তারকা খ্যাতি পেলেও ছোটবেলার বন্ধুদের আজও ভুলে যাননি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক। চিত্রটা বদলায়নি মাশরাফি সংসদ সদস্য হওয়ার পরও।

মাশরাফি ঢাকায় থাকলেও বন্ধুদের নিয়মিত খোঁজ নেন বলে জানা গেছে। আর এলাকায় গেলে তো কথা-ই নেই; বন্ধুদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাতের পাশাপাশি খোশ-গল্পে মেতে উঠেন।

এ বিষয়ে রবি বলেন, ‘আমি মুচি, জুতা স্যান্ডেলের কাজ করি চুরি তো করি না। আমার বন্ধু মাশরাফি এমপি ও ক্রিকেট তারকা। সে যতটা পারে আমাদের সাহায্য করে। সে নড়াইলে আসলে আমার সঙ্গে দেখা করে। তেমনি শনিবারও এসেছিল। কে বা কারা ছবি তুলে ফেসবুকে দিয়েছে। এজন্যই এতো আলোচনা সমালোচনা। মাশরাফির সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব আজীবনের।’

এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ছোটবেলায় যাদের সঙ্গে খেলা করে চিত্রা নদীতে সাঁতার কেটে বড় হয়েছি তারা আমার বন্ধু। তারা যে পেশায় থাকুক তাতে কী আসে যায়।