দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

জেড ক্যাটেগরির শেয়ারে আগ্রহ বিনিয়োগকারীদের

মুস্তাফিজুর রহমান নাহিদ: লেনদেন নিষ্পত্তির সময়সীমা কমিয়ে আনার কারণে ‘জেড’ ক্যাটেগরির কোম্পানির শেয়ারে আগ্রহ বেড়েছে বিনিয়োগকারীদের। কিছুদিন আগে এই ধরনের কোম্পানির শেয়ার নিষ্পত্তির সময় ১০ দিন থেকে ৪ দিনে নামিয়ে আনে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এরপর থেকেই ‘জেড’ ক্যাটেগরির শেয়ারের প্রতি ঝুঁকে পড়েন বিনিয়োগকারীরা। যে কারণে এই ধরনের কোম্পানিতে বিনিয়োগও বাড়ছে।

কিছুদিন আগেও ‘জেড’ ক্যাটেগরির কোম্পানির শেয়ারে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ দেখা গেছে ১৫ শতাংশের কম। বর্তমানে তা ২০ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। গতকালও এর ব্যতিক্রম ছিল না। এদিন ‘জেড’ ক্যাটেগরির কোম্পানিতে আগ্রহ ছিল প্রায় ২৭ শতাংশ বিনিয়োগকারীর।

এদিকে আগের তিন কার্যদিবসের মতো গতকালও নিন্মমুখী ছিল পুঁজিবাজার। এদিনও ডিএসইর প্রধান সূচক কমতে দেখা যায় ৪২ পয়েন্ট। গতকাল দিন শেষে সূচকের অবস্থান হয় চার হাজার ৯৭০ পয়েন্ট। পাশাপাশি গতকাল লেনদেনও আগের দিনের চেয়ে কমে গেছে। গতকাল ডিএসইতে মোট ৭২৯ কোটি টাকার শেয়ার এবং ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্যে ৯ কোটি টাকার শেয়ার ব্লক মার্কেটে লেনদেন হতে দেখা যায়। এ মার্কেটে লেনদেনে অংশ নেয় মোট ১৯টি প্রতিষ্ঠান।

অন্যদিকে খাতভিত্তিক লেনদেনে চোখ রাখলে দেখা যায়, গতকাল পতনের বাজারে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের শীর্ষে ছিল বিমা খাত। বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ থাকার কারণে গতকাল এই খাতের সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর বাড়তে দেখা যায়, যার জের ধরে দিন শেষে মোট লেনদেনে এই খাতের অংশগ্রহণ দেখা যায় ২৪ শতাংশের কিছু বেশি। পরের অবস্থানে ছিল আর্থিক খাতের কোম্পানির। বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ থাকার কারণে দিন শেষে এই মোট লেনদেনে এ খাতের অবদান দেখা যায় প্রায় ১৬ শতাংশ।

এদিকে আগের কার্য দিবসের মতো গতকালও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের প্রতি আগ্রহ দেখা যায় বিনিয়োগকারীদের। দীর্ঘদিন ধরে বেশিরভাগ মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হচ্ছে অভিহিত দর বা ১০ টাকার নিচে। এর মধ্যে বেশ কিছু ফান্ডের ইউনিট পাঁচ টাকার নিচে রয়েছে। মূলত স্বল্প দর পেয়েই এই খাতে ঝুঁকছেন বিনিয়োগকারীরা। কারণ বাজার ভালো থাকলে এখানে কম বিনিয়োগেও ভালো মুনাফা আসার সম্ভাবনা রয়েছে। যে কারণে গতকাল দিন শেষে মোট লেনদেনে এই খাতটির অবদান দেখতে পাওয়া যায় ১০ দশমিক ৮২ শতাংশ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..