প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

জ্বালানির দাম কমাল ভারত

শেয়ার বিজ ডেস্ক: পেট্রোল ও ডিজেলের ওপর শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। মূল্যস্ফীতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে ও জরুরি পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। খবর: হিন্দুস্তান টাইমস।

গত শনিবার এ সিদ্ধান্তের কথা জানান, দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। টুইটে তিনি লেখেন, প্রতি লিটার ডিজেলে ছয় রুপি ও পেট্রলে আট রুপি শুল্ক কমানো হচ্ছে। এতে প্রতিবছর সরকারের এক লাখ কোটি রুপি বাড়তি খরচ হবে।

দ্রব্যমূল্যের চরম ঊর্ধ্বগতিতে দিশাহারা জনগণকে খানিকটা স্বস্তি দিতে এ চেষ্টা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। তিনি রাজ্য সরকারগুলোকে কেন্দ্রীয় সরকারের পরিকল্পনার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে অনুরূপ ব্যবস্থা নেয়ার আহŸান জানান।

বর্তমানে রাজধানী দিল্লিতে প্রতি লিটার পেট্রোল ১০৫ দশমিক ৪১ রুপি ও ডিজেল ৯৬ দশমিক ৬৭ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে।

শুধু পেট্রোল বা ডিজেল নয়, সরকার রান্নায় ব্যবহƒত প্রতিটি গ্যাসের সিলিন্ডারে ২০০ রুপি ভর্তুকি দেবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। ফলে দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করা নারীদের জন্য মোদি সরকারের একটি কল্যাণ স্কিমের আওতায় দেশটির ৯ কোটির বেশি মানুষ উপকৃত হবেন বলে আশাবাদী তিনি।

গ্যাসের সিলিন্ডারে ভর্তুকি দেয়ার ফলে বছরে সরকারের প্রায় ছয় হাজার ১০০ কোটি রুপি রাজস্ব আয়ে প্রভাব পড়বে।

জ্বালানির ওপর কর কমানো ছাড়াও ভারত সরকার প্লাস্টিক পণ্য, লোহা ও স্টিল তৈরির কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক কমাবে, যাতে জনগণের হাতে এ-জাতীয় পণ্য তুলনামূলক কম দামে দেয়া যায়।

এ পদক্ষেপে রাজস্ব আয় কমে যাবে, যা আর্থিক উদ্বেগ বাড়াতে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা। সর্বশেষ এ পদক্ষেপের কারণে ২০২২-২৩ অর্থবছরে ভারত সরকার জিডিপির ৬ দশমিক ৪ শতাংশ ঘাটতি পূরণের যে লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছিল, তা পূরণ নিয়েও সংশয় দেখা দিতে পারে।

তবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইট বার্তায় লেখেন, আমাদের কাছে জনগণ সব সময় সবার আগে।