Print Date & Time : 2 July 2022 Saturday 10:05 am

জয়ের ধারায় ফিরল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: একেই বলে হেসে-খেলে জয়। প্রতিপক্ষকে পাত্তাই দিল না লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। ম্যাচের শুরুতে দেখা মিলল সাব্বির রহমান ও সাকিব আল হাসানের দুর্দান্ত ব্যাটিং পসরা। এরপর চিরাগ জানির বল হাতে ঝড়। দুইয়ে মিলে লিজেন্ডসদের সামনে চেনা গেল না গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে। দাপট দেখিয়ে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ তুলে নিয়েছে ৯৬ রানের জয়।

যদিও এমন জয়ের পরও অবশ্য লিগ শিরোপা পুনরুদ্ধার করা হলো না মাশরাফি বিন মর্তুজার রূপগঞ্জের। মঙ্গলবারের আরেক ম্যাচে আবাহনীকে হারিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। ১৪ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ট্রফি জয় নিশ্চিত করেছে ইমরুল কায়েসের দল। দুইয়ে রয়েছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। সাবেক চ্যাম্পিয়নদের অর্জন সমান ম্যাচে ২০ পয়েন্ট।

আজ সাভারের বিকেএসপিতে টস জিতে ব্যাট করতে নামে মাশরাফির দল। ৯ উইকেট হারিয়ে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা করে ২৯৩ রান। জবাব দিতে নেমে চিরাগের মিডিয়াম পেসের সামনে আÍসমর্পণ গাজী গ্রুপের। দলটি অলআউট হয় মাত্র ৯৭ রানে। চিরাগ ৭.২ ওভার বোলিং করে ১৫ রান দিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন।

এদিন ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন সাকিব। পাঁচে ব্যাট করতে নেমে ছয়টি চার ও তিনটি ছয়ে ২২৬.৯২ স্ট্রাইক রেটে ২৬ বলে করেন ৫৯ রান। সাব্বির আরেকটি শতরানের পথে ছিলেন। কিন্তু ৯০ রানেই উইকেটকিপার আকবর আলির হাতে ক্যাচ দেন তিনি। যদিও সাব্বিরের চেহারা দেখে মনে হয়েছিল বল ব্যাটে স্পর্শই করেনি। কিন্তু আম্পায়ারের দেয়া সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে মাঠ ছাড়েন এই ব্যাটসম্যান।

সাব্বিরের আগেই সাকিব ব্যাট হাতে রীতিমতো ঝড় তুললেন। প্রতিপক্ষের বোলারদের আক্রমণ তছনছ করে মাত্র ২১ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেন সাকিব। সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে আসে ৯০ রান। ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে রূপগঞ্জ তুলে ২৯৩ রান।

লিজেন্ডসদের হয়ে আগে সাকিব দুই ম্যাচে করেন মাত্র ২১ ও ৮ রান। নিজের তৃতীয় ম্যাচে এসে রূপগঞ্জে নাম লেখানো সাকিব শুরু থেকেই ছিলেন আক্রমণাÍক। গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বোলারদের শাসন করে মাত্র ২১ বলে অর্ধশতক তুলেন। ফেরেন ২৬ বলে ৫৯ রানে। এটি তার লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের ৫৯তম ফিফটি। ২২৭ প্রায় স্ট্রাইক রেটের ইনিংসে ছিল ৬টি চারের সঙ্গে ৩টি ছক্কা। এই ইনিংস খেলার পথে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে আট হাজার রানের মাইলফলক পেরিয়ে যান সাকিব।

ইতিহাস জানাচ্ছে-লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তৃৃতীয় দ্রুততম ফিফটি সাকিবের। দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড ফরহাদ রেজার। ২০১৯ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে ২০ বলে ৫৬ রানের ইনিংসের পথে ফরহাদ ফিফটি তুলেন ১৮ বলে।

১০ রানের আক্ষেপে পুড়ে ৯০ রানে ফেরেন লিজেন্ডস তারকা সাব্বির। ৫৩ বলে অর্ধশতক পূরণ করেন সাব্বির। তার ৮৩ বলের ইনিংসটিতে ছিল ৬টি চার ও ৩টি ছয়ের মার। রকিবুল হাসানের ৪৭ ও নাঈম ইসলামের ৪২ রান করেন।

তারপর বল হাতে দাপট থাকল চিরাগ জানির। গাজী গ্রুপ ৭ ওভার শেষ না হতেই মাত্র ৩০ রানে ৬ উইকেট হারায়। দলীয় সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন আটে নামা এ কে এম হুসনা। ২৭ রান এস এম মেহরবের ব্যাটে। চিরাগ ছাড়াও দারুণ বোলিং করেন আল আমীন ও নাঈম ইসলাম। দুজনই নেন ২টি করে উইকেট। তবে ম্যাচের সেরা সাব্বির রহমান।

একই দিন মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিং নেয় আবাহনী লিমিটেড। ৬ উইকেটে ২২৯ রান করে মোসাদ্দেক হোসেনের দল। জবাবে নেমে ৪৭ ওভারে ৪ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় শেখ জামাল। নূরুল হাসান সোহান খেলেন হার না মানা ৮১ রানের ইনিংস। তার ইনিংসেই শেখ জামালের হাতে ধরা দিল লিগ শিরোপা।