সারা বাংলা

ঝিনাইদহে লকডাউন উপেক্ষা করে বের হচ্ছেন মানুষ

প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহে চলমান কঠোর লকডাউনে মানা হচ্ছে না কোনো নির্দেশনা। আইন অমান্য করে বিনা কারণে নানা অজুহাতে বের হচ্ছে মানুষ। সড়কে ছোট যান চলাচল করছে, বেড়েছে লোকসমাগম। শহরের বেশিরভাগ দোকান আংশিক খোলা রেখে কেনাবেচা চলছে। সকালে শহরের বিভিন্ন সড়ক ও গলিতে অন্যান্য দিনের তুলনায় বেড়েছে মানুষের উপস্থিতি। এদিকে হাট ও বাজারগুলোয় গাদাগাদি করে কেনাবেচা করছে ক্রেতা-বিক্রেতারা। অনেকে পরছে না মাস্ক। এ কারণে দিন দিন বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা ও করোনায় আক্রান্তের হার বলে মনে করছে সচেতন মহল।

জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা শহরের বিভিন্ন মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়ে চলাচল নিয়ন্ত্রণের জন্য চেষ্টা করছে। তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে চলাচল করছে মানুষ। সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, ২৮ জুলাই সকাল থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা পজেটিভ নিয়ে পাঁচজন মারা গেছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ১৯৪ জনে। এছাড়া নতুন করে ২৪০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭০ জনের করোনা পজেটিভ এসেছে। আক্রান্তের হার ২৯ দশমিক চার ভাগ।

তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা রোধ করা যাচ্ছে না। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, সরকারি দেয়া নির্দেশনা না মেনে বিনা কারণে অযথা বাইরে ঘোরাঘুরি আর স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে সংক্রমণ দিন দিন বেড়ে চলেছে। পুলিশ বা প্রশাসন কঠোর হলেও মানুষ যদি সচেতন না হয় তবে করোনার সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব হবে না।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত ডিসি (সার্বিক) সেলিম রেজা বলেন, কঠোর লকডাউন কার্যকরে জেলা ও উপজেলায় ১১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত নিয়মিত পরিচালিত হচ্ছে। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিতভাবে সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা চলছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..