প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছেন ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক

করদাতাদের উৎসাহ ও ২০১৮-১৯ করবছরে সর্বোচ্চ আয়কর প্রদানের স্বীকৃতি হিসেবে জাতীয় পর্যায়ে তিন ক্যাটেগরিতে ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে ‘ট্যাক্স কার্ড’ দিচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। একই সঙ্গে জেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ কর দেওয়ার জন্য ৩৭৪ জন এবং দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী ১৪৭ জনকে সম্মাননা দেওয়া হবে। গতকাল বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের উপসচিব এসএম আবদুল কাদেরের সই করা ট্যাক্স কার্ডপ্রাপ্তদের পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, জাতীয় পর্যায়ে ব্যক্তি পর্যায়ে ৭৪ করদাতা, কোম্পানি পর্যায়ে ১০ করদাতা এবং অন্যান্য ক্যাটেগরিতে ১০ করদাতাসহ মোট ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছেন। সরকার ঘোষিত ‘জাতীয় ট্যাক্স কার্ড নীতিমালা, ২০১০ (সংশোধিত)’ অনুযায়ী এসব কার্ড দেওয়া হচ্ছে। আয়কর মেলায় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কার্ড দেওয়া হবে।

ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের মধ্যে বিশেষ শ্রেণির বিবেচনায় প্রথম সিনিয়র সিটিজেন ক্যাটেগরিতে পাঁচজন, গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ক্যাটেগরিতে তিনজন, প্রতিবন্ধী তিনজন, মহিলা পাঁচজন ও তরুণ রয়েছেন পাঁচজন। আয়ের উৎস বা পেশা বিবেচনায় ব্যবসায়ী পাঁচজন, বেতনভোগী পাঁচজন, ডাক্তার পাঁচজন, সাংবাদিক পাঁচজন, আইনজীবী পাঁচজন, প্রকৌশলী তিনজন, স্থপতি তিনজন, অ্যাকাউনট্যান্ট তিনজন, নতুন করদাতা সাতজন, খেলোয়াড় তিনজন, অভিনেতা-অভিনেত্রী তিনজন, গায়ক-গায়িকা তিনজন, এবং অন্যান্য ক্যাটেগরিতে তিনজনকে নির্বাচিত করা হয়।

কোম্পানি পর্যায়ে ৫৭টি ট্যাক্স কার্ডের মধ্যে আটটি ব্যাংক, চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান, একটি টেলি কমিউনিকেশন, তিনটি খাদ্য ও আনুষঙ্গিক, তিনটি জ্বালানি, তিনটি পাটশিল্প, সাতটি স্পিনিং ও টেক্সটাইল, চারটি ওষুধ ও রসায়ন, চারটি প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া, তিনটি রিয়েল এস্টেট, সাতটি তৈরি পোশাক প্রতিষ্ঠান, তিনটি চামড়াশিল্প প্রতিষ্ঠান এবং চারটি অন্যান্য ক্যাটেগরির প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

আটটি ব্যাংকের মধ্যে রয়েছেÑইসলামী ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, হংকং অ্যান্ড সাংহাই ব্যাংকিং করপোরেশন, ব্র্যাক ব্যাংক, পূর্বালী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক ও ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছেÑইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি, ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ, আইডিএলসি ফ্যাইন্যান্স ও বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকটার ফাইন্যান্স ফান্ড। টেলিকমিউনিকেশন ক্যাটেগরিতে রয়েছে শুধু গ্রামীণফোন। প্রকৌশল ক্যাটেগরিতে রয়েছে বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি, খুলনা শিপইয়ার্ড ও বিএসআরএম স্টিলস। খাদ্য ও আনুষঙ্গিক ক্যাটেগরিতে রয়েছে নেসলে বাংলাদেশ, অলিম্পিক ইস্টাস্ট্রিজ ও স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড। জ্বালানি ক্যাটেগরিতে রয়েছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড ও গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি (জিটিসিএল)। পাটশিল্প ক্যাটেগরিতে রয়েছে আকিজ জুট মিলস, জনতা জুট মিলস ও সুপার জুট মিলস। স্পিনিং ও টেক্সটাইল ক্যাটেগরিতে রয়েছে কোটস বাংলাদেশ, বাদশা টেক্সটাইলস, এসিএস টেক্সটাইলস বাংলাদেশ, নোমান টেরিটাওয়েল মিলস, এপেক্স টেক্সটাইল প্রিন্টিং মিলস, এনভয় টেক্সটাইল ও ফখরুদ্দীন টেক্সটাইলস মিলস।

ওষুধ ও রসায়ন ক্যাটেগরিতে রয়েছে ইউনিলিভার বাংলাদেশ, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ইনসেপটা ফার্মাসিউটিক্যালস ও রেনাটা লিমিটেড। প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটেগরিতে রয়েছে মিডিয়াস্টার লিমিটেড, ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড, ট্রান্সক্রাফট লিমিটেড ও মিডিয়াওয়ার্ল্ড। রিয়েল এস্টেট ক্যাটেগরিতে রয়েছে র‌্যাংগস প্রপার্টিজ লিমিটেড, ইকুইটি প্রপার্টি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড ও বে-ডেভেলপমেন্টস লিমিটেড।

তৈরি পোশাক ক্যাটেগরিতে রয়েছে ইয়াংওয়ান হাইটেক স্পোর্টসওয়্যার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, রিফাত গার্মেন্টস লিমিটেড, জিএমএস কম্পোজিট নিটিং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, হা-মীম ডেনিম লিমিটেড, দ্যাটস ইট স্পোর্টসওয়্যার লিমিটেড, প্যাসিফিক জিন্স লিমিটেড ও ফোর এইচ ফ্যাশনস লিমিটেড। চামড়াশিল্প ক্যাটেগরিতে রয়েছে বাটা শু কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড, এপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেড ও এটলাস ফুটওয়্যার লিমিটেড। অন্যান্য ক্যাটেগরিতে রয়েছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেড, আমেরিকান লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, সাধারণ বিমা করপোরেশন ও তমা কনস্ট্রাকশন অ্যান্ড কোম্পানি।

অন্যান্য করদাতা পর্যায়ে ১০টি ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছেÑফার্ম ক্যাটেগটরিতে মেসার্স এসএন করপোরেশন, মেসার্স এএসবিএস, মেসার্স ছালেহ আহম্মদ ও ভাটারা বসুন্ধরার ওয়ালটন প্লাজা। ব্যক্তি সংঘ ক্যাটেগরিতে মোংলা সিমেন্ট ফ্যাক্টরি ও ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি এবং অন্যান্য ক্যাটেগরিতে আশা, ব্যুরো বাংলাদেশ, আরএস ট্রেডিং ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ট্যাক্স কার্ডের মেয়াদ এক বছর। এ সময়ে ট্যাক্স কার্ডধারীরা বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠান এবং সিটি করপোরেশন, পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ পাবেন। যেকোনো ভ্রমণে সড়ক, বিমান বা জলপথে টিকিট পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন। স্ত্রী-স্বামী ও নির্ভরশীল ছেলেমেয়েদের নিজেদের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ক্যাবিন সুবিধা দেওয়া হবে। এছাড়া বিমানবন্দরে সিআইপি (বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি) লাউঞ্জ ব্যবহার করতে পারবেন। তারকা হোটেলসহ সব আবাসিক হোটেলে বুকিং পাওয়ার ক্ষেত্রেও তারা অগ্রাধিকার পাবেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..