Print Date & Time : 13 April 2021 Tuesday 8:19 pm

ট্রাম্পের নীতি বদলাতে কাজ শুরু বাইডেনের

প্রকাশ: January 21, 2021 সময়- 09:24 pm

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শপথ নেয়ার কয়েক ঘণ্টা পরই সদ্যবিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রধান কিছু নীতি উল্টে দিতে শুরু করেছেন। বুধবার অভিষেকের পর এক টুইটে বাইডেন বলেন, যে সংকটগুলোর মুখে পড়েছি আমার তা মোকাবিলার ক্ষেত্রে নষ্ট করার মতো সময় নেই। খবর: বিবিসি, রয়টার্স ও সিএনএন।

এদিকে ক্ষমতা গ্রহণের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন অন্তত ১৫টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। জানা যায়, এসব নির্বাহী আদেশের মধ্যে তিনটিই করোনা মোকাবিলার বিষয়ে আর দুটি যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি নিয়ে। এর বাইরে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর মধ্যে আছে জলবায়ু পরিবর্তন ও অভিবাসন নীতি, যেখানে ট্রাম্প প্রশাসনের অবস্থানও উল্টে দিয়েছেন তিনি।

৩০ দিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রকে ফের প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফেরানোর নির্বাহী আদেশেও স্বাক্ষর করেছেন তিনি। আরেক আদেশে কর্মক্ষেত্রে লিঙ্গবৈষম্য দূর করা তথা সমতা নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে।

সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে ট্রাম্পের দেয়া নিষেধাজ্ঞাও তুলে নিয়েছেন বাইডেন। নির্বাচনের আগেই ক্ষমতায় এলে হোয়াইট হাউসে নিজের প্রথম দিনই এটি তুলে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে তহবিলের জন্য ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি ডিক্লারেশন বাতিল করেছেন। অর্থাৎ সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের কাজ স্থগিত করা হয়েছে। এর আগে হোয়াইট হাউসে দেয়া অভিষেক ভাষণে পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেইন’ কিংবা ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতির মর্মমূলে আঘাত হানেন বাইডেন। দরিদ্র শ্বেতাঙ্গ আমেরিকানদের ভোট জিততে বিভক্তির সূত্রে ট্রাম্প তাদের বিপরীতে শত্রু হিসেবে দাঁড় করিয়েছিলেন মুসলিম অভিবাসী আর মেক্সিকানদের। শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের সেই বিদ্বেষী রাজনীতিকে চ্যালেঞ্জ করে বাইডেন বলেন, আমেরিকার ইতিহাসে বারবার বিভক্তির বিপরীতে ঐক্য জিতেছে।

নির্বাহী আদেশগুলোর বিস্তারিত তুলে ধরে ওভাল অফিস দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট বাইডেন পদক্ষেপ নেবেনÑশুধু ট্রাম্প প্রশাসনের গুরুতর ক্ষতিগুলো উল্টে দিতেই নয়, পাশাপাশি আমাদের দেশের এগিয়ে যাওয়া শুরু করতেও।

বিবৃতিতে জানানো হয়, যুক্তরাষ্ট্রের চার লাখেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নেয়া করোনা মহামারি মোকাবিলার জন্য ধারাবাহিকভাবে কিছু পদক্ষেপ কার্যকর করা হবে। দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের সব দপ্তর ও স্থাপনায় মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বাধ্যতামূলক হবে।

মহামারি মোকাবিলায় নেয়া পদক্ষেপগুলো সমন্বয় করতে নতুন একটি দপ্তর স্থাপন করা হবে এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) থেকে বের হয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া স্থগিত করবে যুক্তরাষ্ট্র। 

এদিকে ডব্লিউএইচওর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ফের যুক্ত হওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। মহামারি মোকাবিলায় সমন্বিত বৈশ্বিক পদক্ষেপ ‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’, তিনি এমনটি বলেছেন বলে জানিয়েছেন তার মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক। 

বিতর্কিত কিস্টোন এক্সএল পাইপলাইনের ক্ষেত্রে দেয়া প্রেসিডেন্টের অনুমোদনও প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি।