সারা বাংলা

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ততা নেই মৃৎশিল্পীদের

প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও: আগামী ২২ অক্টোবর শুরু হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। পূজার জন্য প্রতিমা তৈরি করতে এ সময় ঠাকুরগাঁয়ের পৌরসভার বিভিন্ন এলাকা ও আশ্রামপাড়া, কলেজপাড়া, গোবিন্দ মন্দির, শিমুলতলা রোডসহ পুরো উপজেলায় ব্যস্ত থাকার কথা ছিল মৃৎশিল্পীদের।

এ বছর দুর্গাপূজার আগেই করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) প্রভাব পড়েছে প্রতিমা শিল্পে। প্রতিমা তৈরির কারিগরদের চোখে মুখে সেই ছাপ স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে। ঢিলেঢালাভাবে অবসর সময় অতিবাহিত করছেন ঠাকুরগাঁওসহ উপজেলার প্রতিমা কারিগররা।

জানা গেছে, ঠাকুরগাঁও উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নানা নির্দেশনা থাকায় পূজা মণ্ডপগুলোতে এবার সাদাসিধেভাবে শারদীয় দুর্গাপূজা উদ্যাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পূজা উদ্যাপন পরিষদ। এ লক্ষ্যে বেশি দাম দিয়ে বড় বড় প্রতিমা তৈরি করছে না কোনো মণ্ডপ।

ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের কলেজ পাড়া ও মন্দিরের দুর্গা প্রতিমা তৈরির কারিগর সাগর পাল বলেন, এই সময় আমাদের কোনো ফুরসত থাকে না। এবার মহামারি করোনার কারণে বড় বড় প্রতিমা তৈরি করছে না মণ্ডপগুলো। এ কারণে আমরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে হচ্ছি।

তিনি বলেন, ‘গত বছর মন্দিরে ২০-৩০ হাজার টাকায় প্রতিমা তৈরি করেছি। এবার মাত্র অল্প টাকার মধ্যেই তৈরি করতে হচ্ছে। এ পর্যন্ত কোনোমতে তিনটি পূজামণ্ডপ পেয়ে কাজ করছি। কি আর করা, বসে না থেকে টুকটাক করে প্রতিমা তৈরির কাজ করছি।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..