সারা বাংলা

ঠাকুরগাঁওয়ে বেড়েছে ডিমের দাম

শামসুল আলম, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে বেড়েছে ডিমের দাম। কমেছে ফল, সবজি ও মাছের দাম। পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকায় কমেছে সবজির দাম। চাল, ডাল, আটার দাম স্থিতিশীল রয়েছে। গত মঙ্গলবার ঠাকুরগাঁওয়ের বিভিন্ন ফলবাজার ঘুরে দেখা যায়, রমজানে এক হালি ব্রয়লার ডিম বিক্রি হতো ২৮-৩০ টাকায়। এখন তা বিক্রি হচ্ছে ৩৪-৩৫ টাকায়। হালিতে দাম বেড়েছে চার থেকে পাঁচ টাকা। এদিকে রমজানের পর ব্রয়লার ও লেয়ারের দাম কিছুটা কমেছে। বর্তমানে লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১৮০ থেকে ২০০, ব্রয়লার ১৩০ থেকে ১৪০, সোনালি ২২০ থেকে ২৩০, দেশি মুরগি ৪২০ থেকে ৪৪০, গরুর মাংস ৫০০ থেকে ৫৫০ এবং খাসির মাংস প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা।
প্রতি কেজি আপেল বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়। এক সপ্তাহ আগে ছিল ৩০০ থেকে ৩২০ টাকা। কমলা বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২৫০, এক জোড়া আনারস ১০০ থেকে ১২০, আঙ্গুর ৪০০ থেকে ৪৫০, কলা প্রতি হালি ৩০ থেকে ৩৫, প্রতি কেজি সূর্যপুরি আম ৪০ থেকে ৪৫, ল্যাংড়া ৫৫ থেকে ৬০, আম্রপালি ৬০ থেকে ৭০, দেশীয় বিভিন্ন জাতের আম প্রতি কেজি ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। লিচু বিক্রি হচ্ছে (১০০) ২০০ থেকে ২২০ টাকায়। জাম ১০০ থেকে ১২০, নারকেল প্রতিটি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়।
এদিকে বাজারে গত সপ্তহের তুলনায় মাছের দাম কিছুটা কমেছে। রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে এক কেজি ওজনের ১৮০ থেকে ২০০, কাতল ১৯০ থেকে ২০০, তেলাপিয়া ১২০ থেকে ১৪০, শিং ৪০০ থেকে ৫০০, সরপুঁটি ১২০ থেকে ১৪০, পাঙ্গাশ ৭০ থেকে ৮০, ইলিশ ১২০০ থেকে ১৩০০, দেশি মাগুর ৪৪০ থেকে ৫০০, হাইব্রিড মাগুর ১০০ থেকে ১২০, পাবদা ৪০০ থেকে ৪৬০, গলদা চিংড়ি বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৫৫০ থেকে ৫৬০ টাকায়।
ঠাকুরগাঁওয়ে বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকায়। প্রতি কেজি পটোল ১৫, পেঁয়াজ ২০, কাঁচামরিচ ৪০, শুকনো মরিচ ২০০, ঢেঁড়শ ১০ থেকে ১২, বরবটি ১৫, কুমড়ো ২০, পুঁইশাক ১০, ডাঁটা ২০, রসুন ১০০, আদা ২৫০, কচুরলতি ২০, সবুজ শাক ২০, করলা ১০, শসা ১০ থেকে ১৫, কচু ৩৫ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

সর্বশেষ..