ডিএসইতে গত সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন ২৮.৭৮ শতাংশ কমেছে

সপ্তাহের ব্যবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহজুড়ে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে এবং সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা দেখা গেছে; একইসঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেন ২৮ দশমিক ৭৮ শতাংশ কমেছে। এছাড়া গেল সপ্তাহের বাজার মূলধন কমেছে শূন্য দশমিক ৩৫ শতাংশ। আগের সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে আর গত সপ্তাহেও পাঁচ কার্যদিবস লেনদেন হয়।

সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৯ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৬ শতাংশ কমে সাত হাজার ২৪৩ দশমিক ২৭ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ২৮ দশমিক ৩৫ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৭৮ শতাংশ কমে এক হাজার ৫৬৭ দশমিক ৪৪ পয়েন্টে পৌঁছায়। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ৪৮ দশমিক ২৫ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৭৪ শতাংশ কমে দুই হাজার ৭১৯ দশমিক ১৪ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৮২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৪টির, কমেছে ২৩১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৩ কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি চারটির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় এক হাজার ৮১২ কোটি ৪২ লাখ ৩০ হাজার টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় দুই হাজার ৫৪৪ কোটি ৯৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ২৮ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

গেল সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৯ হাজার ৬২ কোটি ১১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা। আগের সপ্তাহে যা ছিল ১২ হাজার ৭২৪ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার কমেছে, যা শতাংশের হিসেবে ২৮ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

ডিএসইতে গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বাজার মূলধন ছিল পাঁচ লাখ ৮২ হাজার ১২৪ কোটি ২৭ লাখ টাকা। শেষ কার্যদিবসে যার পরিমাণ ছিল পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ১১২ কোটি ৮১ লাখ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন কমেছে শূন্য দশমিক ৩৫ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড গত সপ্তাহে দর বৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ২৯ দশমিক ৫১ শতাংশ। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি ৫৩ লাখ ১০ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৩৭ কোটি ৬৫ লাখ ৫৩ হাজার টাকা।

তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ছয় কোটি ৪৮ লাখ ৯৫ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩২ কোটি ৪৪ লাখ ৭৯ হাজার টাকা।

এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা যথাক্রমে ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২১ দশমিক ৭৯ শতাংশ। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ১৯ কোটি ৫৮ লাখ ২৫ হাজার ২০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৯৭ কোটি ৯১ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ১৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে এক কোটি ৯১ লাখ ১২ হাজার ২০০ টাকার শেয়ার। পঞ্চম অবস্থানে থাকা দেশবন্ধু পলিমার লিমিটেডের ১৯ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ বেড়েছে। কাট্টলী টেক্সটাইল লিমিটেডের ১৬ দশমিক ৬৫ শতাংশ, ফরচুন শুজ লিমিটেডের ১৩ দশমিক ৭১ শতাংশ, আমান ফিড লিমিটেডের ১২ দশমিক শূন্য এক শতাংশ, ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের ১১ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১০ দশমিক ৪০ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯০  জন  

সর্বশেষ..