প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ডিএসইতে গত সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন ১১ শতাংশ কমেছে

সপ্তাহের ব্যবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহজুড়ে সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর কমায় সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা দেখা গেছে; একইসঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেন ১১ দশমিক ৪৪ শতাংশ কমেছে। অন্যদিকে গত সপ্তাহের বাজার মূলধন কমেছে ১ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আগের সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে, আর গত সপ্তাহে চার কার্যদিবস লেনদেন হয়।

সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৬৩ দশমিক ৪৮ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৫৯ শতাংশ কমে ৬ হাজার ১৪৮ দশমিক ৭৭ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ২৯ দশমিক ৪৭ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ১৪ শতাংশ কমে এক হাজার ৩৪৫ দশমিক ৭২ পয়েন্টে পৌঁছায়। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ৭০ দশমিক ৮১ পয়েন্ট বা ৩ দশমিক ১৩ শতাংশ কমে দুই হাজার ১৯৪ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৯৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪১টির, কমেছে ২৮৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৮টি কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি ৯টির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৮৯৬ কোটি ১ লাখ ৩১ হাজার ৪৯৮ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় এক হাজার ১১ কোটি ৭২ লাখ ৮৫ হাজার ৬১৬ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ১১ দশমিক ৪৪ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩ হাজার ৫৮৪ কোটি ৫ লাখ ২৫ হাজার ৯৯২ টাকা, আগের সপ্তাহে যা ছিল ৫ হাজার ৫৮ কোটি ৬৪ লাখ ২৮ হাজার ৭৮ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার কমেছে, যা শতাংশের হিসেবে ২৯ দশমিক ১৫ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে থাকা এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড। আলোচিত সময়ে মিউচুয়াল ফান্ডটির ইউনিটদর বেড়েছে ১৫ দশমিক ২৯ শতাংশ। গত সপ্তাহে ফান্ডটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ১ কোটি ৮ লাখ ৩২ হাজার ৫০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৪ কোটি ৩৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা। তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সি পার্ল বিচ রিসোর্ট লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ১১ দশমিক ৬২ শতাংশ। তৃতীয় অবস্থানে থাকা ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৯ দশমিক ৮০ শতাংশ। চতুর্থ অবস্থানে থাকা রংপুর ফাউন্ড্রি লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৮ দশমিক ৪২ শতাংশ। পঞ্চম অবস্থানে থাকা কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা যথাক্রমে সোনালী পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৬ দশমিক ৯১ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইল লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারদর বেড়েছে ৫ দশমিক ৮০ শতাংশ, সিনো বাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৫ দশমিক ১৪ শতাংশ, এবং হাক্কানী পাল্প অ্যান্ড পেপার মিলস লিমিটেডের ৪ দশমিক ৬২ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

গত সপ্তাহে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড (বেক্সিমকো)। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ২ কোটি ৭২ লাখ ২৬ হাজার ১৯১টি শেয়ার ৩৩২ কোটি ৮৩ লাখ ২৮ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ৯ দশমিক ২৯ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ৮ দশমিক ৪৪ শতাংশ কমেছে। আর লেনদেনের এ তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসা মালেক স্পিনিং মিলস লিমিটেডের সপ্তাহজুড়ে ৩ কোটি ৭ লাখ ৯৯ হাজার ৮৭৯টি শেয়ার ১১২ কোটি ৭ লাখ ৯৬ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ৩ দশমিক ১৩ শতাংশ।