প্রচ্ছদ শেষ পাতা

ডিএসইতে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেল কপারটেক

নিজস্ব প্রতিবেদক: ডিএসইতে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেয়েছে সম্প্রতি আইপিও প্রক্রিয়া সম্পন্নকারী কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পর্ষদ সভায় গতকাল প্রতিষ্ঠানটিকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেওয়া হয়। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিশেষ অনুমোদন সাপেক্ষে এটি কার্যকর হবে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
দেশের অপর স্টক এক্সচেঞ্জ চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) গত জুন মাসে আলোচিত এ কোম্পানিটিকে তালিকাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ডিএসইতে তালিকাভুক্তির বিষয়টি ঝুলে থাকায় এতদিন পর্যন্ত লেনদেন শুরু করেনি তারা।
এর আগে কোম্পানিটি ৯ জুন সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডারদের বিও অ্যাকাউন্টে শেয়ার জমা করে। গত ৩০ এপ্রিল কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের আইপিও লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়। গত ৩১ মার্চ চাঁদা গ্রহণ শুরু হয়, শেষ হয় ৯ এপ্রিল। এর আগে ডিসেম্বরে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬৭০তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদিত হয়।
কোম্পানিটি দুই কোটি সাধারণ শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। প্রতিটি শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা।
তথ্যমতে, বাজার থেকে পুঁজি উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যাংক ঋণ পরিশোধে ছয় কোটি ৫০ লাখ টাকা, প্লান্ট ও যন্ত্রপাতি ক্রয় স্থাপনে ছয় কোটি ৫০ লাখ টাকা এবং ভবন ও সিভিল ওয়ার্কে খরচ হবে পাঁচ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিও ফান্ড পাওয়ার ১২ মাসের মধ্যে প্রজেক্টের কাজ শেষ করা হবে। আর আইপিও বাবদ খরচ হিসাব করা হয়েছে এক কোটি ৫০ লাখ টাকা।
জানা গেছে, কপারটেককে তালিকাভুক্ত করার এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে তালিকাভুক্তি আইনের সংশ্লিষ্ট একটি ধারা [লিস্টিং রুলসের ৫(৩)] থেকে অব্যাহতি দিতে হবে।
বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ কপার বার, কপার রড, কপার স্ট্রিপ, কপার তার, কপার পাইপ এবং কপার টিউব প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানটি ২০১২ সালের ১৬ অক্টোবর প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে নিবন্ধিত হয়, যা পরে ২০১৮ সালের ৩১ মে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয়।
কোম্পানিটি ২০১৪ সালের জুন মাস থেকে তাদের উৎপাদন কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। কোম্পানির উৎপাদিত পণ্যগুলো বিদ্যুৎ প্লান্ট, বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার, এসি ও ফ্রিজ তৈরিতে এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কারখানা ও বৈদ্যুতিক পণ্য প্রস্তুতিতে ব্যবহার করা হয়।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..