কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ৩৪ দশমিক ২২ শতাংশ

সপ্তাহের ব্যবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ৩৪ দশমিক ২২ শতাংশ। তবে বাজার মূলধন বেড়েছে শূন্য দশমিক ২৮ শতাংশ। সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৯ দশমিক ৬০ পয়েন্ট বা এক দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ৪১৬ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ১৬ দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৪ শতাংশ কমে এক হাজার ২২৫ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএস৩০ সূচক ৩৯ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৮৯ শতাংশ কমে দুই হাজার ৬৫ দশমিক ৮০ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৭১টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২১টির, কমেছে ১২৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১১৮ কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি ছয়টির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৫৮৩ কোটি ৮২ লাখ ১৪ হাজার ১৭০ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৮৮৭ কোটি ৫৩ লাখ ৩৯ হাজার ৪৫১ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ৩০৩ কোটি ৭১ লাখ ২৫ হাজার ২৮১ টাকা বা ৩৪ দশমিক ২২ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে রবি আজিয়াটা লিমিটেড। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ১১ দশমিক ২০ শতাংশ। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে ৪২ কোটি ২৮ লাখ ৮২ হাজার টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৬৯ কোটি ১৫ লাখ ২৮ হাজার টাকা।

তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেড। ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ১০ দশমিক ৭৭ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন সাত কোটি ৪৪ লাখ ৪৪ হাজার ৫০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ২৯ কোটি ৭৭ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার।

তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্স ফান্ড। ‘এ’ ক্যাটেগরির এ ফান্ডটির শেয়ারদর বেড়েছে ৯ দশমিক ৩০ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ১২ লাখ ৫৫ হাজার ২৫০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৫০ লাখ ২১ হাজার টাকার শেয়ার।

এর পরের অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ৯ দশমিক ১৭ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ১৭ কোটি ৩১ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৬৯ কোটি ২৭ লাখ ১২ হাজার টাকার শেয়ার।

এর পরের অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির সামিট পাওয়ার লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে আট দশমিক ৮০ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন ১৮ কোটি ছয় লাখ ছয় হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৭২ কোটি ২৪ লাখ ২৪ হাজার টাকার শেয়ার।

আর ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা ‘বি’ ক্যাটেগরির বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে আট দশমিক ৩৯ শতাংশ। সপ্তম অবস্থানে থাকা ‘এ’ ক্যাটেগরির পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে সাত দশমিক ২১ শতাংশ। পরের অবস্থানে থাকা ‘বি’ ক্যাটেগরির আলহাজ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ছয় দশমিক ৭৬ শতাংশ। এডিএন টেলিকম লিমিটেডের ছয় দশমিক ৩১ শতাংশ এবং তালিকার সর্বশেষ অবস্থানে থাকা থাকা পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে পাঁচ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

ডিএসইতে টার্নওভারের দিক থেকে শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড (বেক্সিমকো)। সপ্তাহজুড়ে ‘বি’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির ছয় কোটি ২৬ লাখ ৭৮ হাজার ৭৫৫টি শেয়ার ৫৩৯ কোটি ২২ লাখ ৩২ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ২৩ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ছয় দশমিক ১৫ শতাংশ কমেছে।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে ছিল রবি আজিয়াটা লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির চার কোটি ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ১৩৩টি শেয়ার ১৬৯ কোটি ১৫ লাখ ২৮ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের সাত দশমিক ২৪ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ১১ দশমিক ২০ শতাংশ বেড়েছে।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেডের সপ্তাহজুড়ে ৯ লাখ ৪৭ হাজার ৭০৭টি শেয়ার ১৪৫ কোটি ছয় লাখ ৮১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ছয় দশমিক ২১ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর চার দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ কমেছে।

আর চতুর্থ অবস্থানে ছিল লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির তিন কোটি ৬৩ লাখ ৬৭ হাজার ৭৮৬টি শেয়ার ১২৮ কোটি ৯৮ লাখ ৭১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের পাঁচ দশমিক ৫২ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর পাঁচ দশমিক ৬৮ শতাংশ কমেছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..