কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

ডিএসইতে বাজার মূলধন বেড়েছে সাড়ে ছয় হাজার কোটি টাকা

সপ্তাহের ব্যবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে গত সপ্তাহজুড়ে ইতিবাচক গতিতে লেনদেন হয়। সবগুলো সূচক ইতিবাচক হওয়ার পাশাপাশি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছে ১৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ। সে সঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেনও একই হারে বেড়েছে। গত সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে দুদিন সূচক কমেছে। তিন দিন বেড়েছে। উত্থানের গতি অনেক বেশি ছিল। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন বেড়েছে এক দশমিক ৯৪ শতাংশ বা ছয় হাজার ৬১৯ কোটি টাকা চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১১১ দশমিক ৬৫ পয়েন্ট বা দুই দশমিক ৫১ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৫৬৪ দশমিক ৬১ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ১৮ দশমিক ৪০ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৭৯ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৪৫ দশমিক ৮২ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএস৩০ সূচক ২২ দশমিক ৭৭ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৫০ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৫৩৬ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৬০টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৪৬টির, কমেছে ৯৪টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৮ কোম্পানির শেয়ার দর। লেনদেন হয়নি দুটির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৫১৯ কোটি ৩০ লাখ ৯ হাজার ৯৯২ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৪৪৪ কোটি ৪১ লাখ ২৬ হাজার ২৩৫ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন বেড়েছে ৭৪ কোটি ৮৮ লাখ টাকা বা ১৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

গেল সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় দুই হাজার ৫৯৬ কোটি ৫০ লাখ ৪৯ হাজার ৯৫৯ টাকা। আগের সপ্তাহে যা ছিল দুই হাজার ২২২ কোটি ছয় লাখ ৩১ হাজার ১৭৭ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার বেড়েছে ৩৭৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকা বা ১৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

ডিএসইতে গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৪০ হাজার ৪৪৭ কোটি ৯ লাখ ৫৭ হাজার টাকা। শেষ কার্যদিবসে যার পরিমাণ ছিল তিন লাখ ৪৭ হাজার ৬৬ কোটি ১৫ লাখ ২৬ হাজার ৩৪৬ টাকা। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন বেড়েছে এক দশমিক ৯৪ শতাংশ বা ছয় হাজার ৬১৯ কোটি টাকা।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে ওষুধ খাতের ওরিয়ন ফার্মা। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ৩৪ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়েছে। তালিকায় এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর ৩০ দশমিক ৪৩ শতাংশ, ওরিয়ন ইনফিউশনের দর ২৮ দশমিক ৯৭ শতাংশ, এসকে ট্রিমসের দর ২৬ দশমিক ৩২ শতাংশ বেড়েছে। আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২২ দশমিক ৮১ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল সোনালী ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২২ দশমিক শূন্য তিন শতাংশ, ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ ২০ দশমিক ৫৫ শতাংশ, সায়হাম টেক্সটাইল মিলসের দর ২০ দশমিক ৫৫ শতাংশ, হাক্কানি পাল্পের দর ২০ দশমিক ১১ শতাংশ, এআইবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর ১৯ দশমিক ৪০ শতাংশ বেড়েছে।

অন্যদিকে ১২ দশমিক ২৮ শতাংশ কমে সাপ্তাহিক দরপতনের শীর্ষে অবস্থান করে শ্যামপুর সুগার মিলস। এরপরের অবস্থানগুলোতে থাকা নর্দার্ণ জুট ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের দর ১০ দশমিক ৪১ শতাংশ, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টসের দর ৯ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, সমতা লেদারের দর সাত দশমিক ৫৪ শতাংশ, এমারাল্ড অয়েলের দর সাত দশমিক ৩৩ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের দর সাত দশমিক ১৭ শতাংশ, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের দর ছয় দশমিক ২৫ শতাংশ, রংপুর ডেইরির দর ছয় দশমিক ১৬ শতাংশ, ডেল্টা স্পিনার্সের দর ছয় শতাংশ, মুন্নু জুট স্টাফলার্সের দর পাঁচ দশমিক ৯৮ শতাংশ কমেছে।

ডিএসইতে টার্নওভারের দিক থেকে শীর্ষ ১০ কোম্পানি

হলো লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, খুলনা পাওয়ার, ইন্দোবাংলা ফার্মা, এডিএন টেলিকম, ওরিয়ন ইনফিউশন, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, এসকে ট্রিমস, এসএস স্টিল, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো।

অন্যদিকে দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩০৮টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৩২টির, কমেছে ৬৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৩টির দর।

সিএসইতে গত সপ্তাহে সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স বেড়েছে দুই দশমিক ৬৮ শতাংশ। এছাড়া সিএএসপিআই সূচক দুই দশমিক ৬৬ শতাংশ, সিএসই৫০ সূচক এক দশমিক ৮৯ শতাংশ, সিএসআই সূচক দুই দশমিক শূন্য চার শতাংশ বেড়েছে। সিএসই৩০ সূচক বেড়েছে দুই দশমিক ৫৪ শতাংশ।

সিএসইতে গেল সপ্তাহে টার্নওভারের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৫৪ কোটি ৭২ হাজার ৫৫ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৯৬ কোটি ৯৯ লাখ ৭৭ হাজার ২৭৮ টাকা। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৫৭ কোটি টাকা।

৩৩ দশমিক ৯২ শতাংশ বেড়ে সিএসইতে সাপ্তাহিক টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে ওরিয়ন ফার্মা। ওরিয়ন ইনফিউশনের দর ৩১ শতাংশ, এসকে ট্রিমসের দর ২৯ দশমিক শূন্য এক শতাংশ, আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২৭ দশমিক ৬৫ শতাংশ বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোতে থাকা হাক্কানি পাল্পের দর ২০ দশমিক ৯৮ শতাংশ, ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের দর ২০ দশমিক ৫৪ শতাংশ, এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২০ দশমিক ৩১ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২০ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর ১৯ দশমিক ১৪ শতাংশ, সায়হাম টেক্সটাইল মিলসের দর ১৯ দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ বেড়েছে।

অন্যদিকে ১১ দশমিক ৫৬ শতাংশ কমে টপ টেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে মেঘনা সিমেন্ট মিলস। প্রাইম ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির দর আট দশমিক ৫৭ শতাংশ কমেছে। এর পরের অবস্থানগুলোতে ছিল উত্তরা ফাইন্যান্স, সমতা লেদার কমপ্লেক্স, গোল্ডেন সন, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, লিবরা ইনফিউশন, মিথুন নিটিং, সালভো কেমিক্যাল, রংপুর ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রডাক্ট।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলোÑঅলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, স্কয়ার ফার্মা, এসএস স্টিল, এডিএন টেলিকম, কনফিডেন্স সিমেন্ট, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, বেক্সিমকো লিমিটেড, উত্তরা ব্যাংক।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..