প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১১৮ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক:চলতি সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে ইতিবাচক গতি দেখা গেছে উভয় পুঁজিবাজারে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বেশিরভাগ শেয়ারদর বৃদ্ধির পাশাপাশি সূচক ইতিবাচক ছিল। একই সঙ্গে লেনদেন আগের কার্যদিবসের তুলনায় ১১৮ কোটি টাকা বেড়েছে। এদিন ৫২ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে, কমেছে ৩৫ শতাংশের দর। গতকাল লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। লেনদেন শেষে ২২ পয়েন্ট ইতিবাচক ছিল সূচক। বাকি দুই সূচকও ইতিবাচক ছিল। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও বেশিরভাগ শেয়ারদর বৃদ্ধির পাশাপাশি বড় অঙ্কের লেনদেন হয়।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২২ দশমিক ২৫ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৫ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৩৪২ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে অবস্থান করে।

ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক দশমিক ৪ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৫ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৩৮৫ দশমিক ৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ৯ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৪১ শতাংশ বেড়ে ২ হাজার ২৯৪ দশমিক ৫৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন এক হাজার ৬২৫ কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ১৫ হাজার ৭৪৮ কোটি টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৮১৮ কোটি ৮২ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৭০০ কোটি ৭৬ লাখ ৭০ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ১১৮ কোটি টাকা। এদিন ২২ কোটি ৬৮ লাখ ১৫ হাজার ৬৫০টি শেয়ার এক লাখ ৬৭ হাজার ৩৮৫ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৮২ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৯৯টির, কমেছে ১৩৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫০টির দর।

অন্যদিকে সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ২৮ দশমিক ৪৯ পয়েন্ট বা দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ১১ হাজার ১৮৭ দশমিক ৮১ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪৬ দশমিক ৬৭ পয়েন্ট বা দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ১৮ হাজার ৬৬৩ দশমিক ৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৯৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬০টির, কমেছে ৯৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৬টির দর। সিএসইতে এদিন ৬০ কোটি ৩৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৬১ কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।