কোম্পানি সংবাদ

ডিএসইতে লেনদেন সামান্য বাড়লেও সূচকের পতন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন সামান্য বাড়লেও সূচক ও বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতন হয়। দর কমেছে ৫৮ শতাংশ কোম্পানির। ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক বাড়লেও ১০ মিনিটের মধ্যে বিক্রির চাপ বাড়লে সূচকে পতন নেমে আসে। এরপর আগের দিনের তুলনায় নেতিবাচক অবস্থানে থেকে সামান্য ব্যবধানে বারবার ওঠানামা করতে থাকে। শেষ পর্যন্ত দুই পয়েন্ট নেতিবাচক অবস্থানে চলে যায়। বাকি দুই সূচকেও পতন নেমে আসে। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে পতন হয়েছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স দুই দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য চার শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ১৩০ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক দশমিক ৭৪ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ কমে এক হাজার ১৭৬ দশমিক ১৪ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক দশমিক ৪৫ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য দুই শতাংশ কমে এক হাজার ৮২৯ দশমিক ৫৭ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৮২ হাজার ২৮৭ কোটি ছয় লাখ ২৯ হাজার ৪৪৯ টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৩৯৫ কোটি ২৯ লাখ ৬৭ হাজার ৪৬ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩০৯ কোটি ৬০ লাখ ১৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৮৫ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এদিন ১৪ কোটি ২০ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪৫টি শেয়ার এক লাখ ১২ হাজার ৯৭৪ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৩ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১১টির, কমেছে ২০৪টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৩৮টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ফরচুন শুজ। কোম্পানিটির ৩৮ লাখ ৮৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৪০ পয়সা। বীকন ফার্মার ২৬ কোটি ৫১ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। তৃতীয় অবস্থানে থাকা সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের ১৩ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে দুই টাকা ৯০ পয়সা। সি পার্ল রিসোর্টসের ১২ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। এর পরের অবস্থানে থাকা ন্যাশনাল পলিমারের সোয়া ১০ কোটি টাকা, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের পৌনে ১০ কোটি টাকা, ইউনাইটেড পাওয়ারের সাড়ে ৯ কোটি টাকা, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৯ কোটি টাকা, রানার অটোমোবাইলের সাড়ে ছয় কোটি টাকা, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের সাড়ে ছয় কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ড। এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ্ ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি মিউচুয়াল ফান্ডের ৯ দশমিক ৪১ শতাংশ, এসইএমএল লেকচার ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের আট দশমিক ৫১ শতাংশ, সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের আট দশমিক ৩৩ শতাংশ, বীকন ফার্মার পাঁচ দশমিক ৮৮ শতাংশ, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের পাঁচ দশমিক ৬০ শতাংশ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের চার দশমিক ৮০ শতাংশ, ওরিয়ন ইনফিউশনসের দর চার দশমিক ১৩ শতাংশ বেড়েছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক এক দশমিক ১২ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য এক শতাংশ কমে ৯ হাজার ৫৫৮ দশমিক ২৯ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই পাঁচ দশমিক ৮২ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য তিন শতাংশ কমে ১৫ হাজার ৭২৪ দশমিক ৭১ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৮৬ কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১১টির, কমেছে ১৫০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৫টির দর।
সিএসইতে এদিন ১৬ কোটি ৮০ লাখ ৫৯ হাজার ৭৪৩ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩০ কোটি ১৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৩০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ১৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে সি পার্ল রিসোর্টস। কোম্পানিটির এক কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপর ডরিন পাওয়ারের এক কোটি শূন্য পাঁচ লাখ টাকার, বীকন ফার্মার এক কোটি শূন্য দশমিক এক লাখ টাকার, জেনেক্স ইনফোসিসের ৭৯ লাখ টাকার, বেক্সিমকোর ৭৩ লাখ টাকার, ফরচুন শুজের ৬৯ লাখ টাকার, রানার অটোর ৫৬ লাখ টাকার, অ্যাকটিভ ফাইনের ৪৯ লাখ টাকার, বিজিআইসির ৩৮ লাখ টাকার, সিলকো ফার্মার ৩০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..