কোম্পানি সংবাদ

ডিএসইতে সূচকের মিশ্র প্রবণতায় লেনদেন বেড়েছে ২২.১০%

সপ্তাহের ব্যবধান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে সূচকের মিশ্র প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে। মোট লেনদেন বেড়েছে ২২ দশমিক ১০ শতাংশ। দৈনিক গড় লেনদেনও একই হারে বেড়েছে। তবে কমেছে বেশিরভাগ শেয়ারদর। বাজার মূলধন বেড়েছে দশমিক ৫৭ শতাংশ। গত সপ্তাহে লেনদেন হয় পাঁচ কার্যদিবস। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল পাঁচ কার্যদিবস। লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে দুই দিন সূচকের উত্থান হয় তিন দিন পতন হয়। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান দুই সূচক কমলেও বেড়েছে সিএসই৫০ সূচক। কমেছে বেশিরভাগ শেয়ারদর।
সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স দুই দশমিক ৫৬ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ বেড়ে পাঁচ হাজার ১৩৩ দশমিক ২৬ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক দুই দশমিক ৪১ পয়েন্ট বা দশমিক ২১ শতাংশ কমে এক হাজার ১৭৩ দশমিক ৭৩ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএস ৩০ সূচক ছয় দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৬ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৮৩৬ দশমিক ১৯ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৫৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৩টির, কমেছে ১৮৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৬ কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি দুটির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৩৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ৪৪ হাজার ৯০৬ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৩২৭ কোটি ৩৫ লাখ ৪৫ হাজার ৭৫৯ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন বেড়েছে ৭২ কোটি ৩২ লাখ টাকা বা ২২ দশমিক ১০ শতাংশ।
গেল সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় এক হাজার ৯৯৮ কোটি ৪২ লাখ ২৪ হাজার ৫৩১ টাকা। আগের সপ্তাহে যা ছিল এক হাজার ৬৩৬ কোটি ৭৭ লাখ ২৮ হাজার ৭৯৬ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার বেড়েছে ৩৬১ কোটি ৬৪ লাখ ৯৫ হাজার টাকা বা ২২ দশমিক ১০ শতাংশ।
ডিএসইতে গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৮২ হাজার ২৮৭ কোটি ছয় লাখ ২৯ হাজার ৪৪৯ টাকা। শেষ কার্যদিবসে যার পরিমাণ ছিল তিন লাখ ৮৪ হাজার ৪৬৭ কোটি ২৪ লাখ ৩২ হাজার ৩২ টাকা। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন বেড়েছে দশমিক দুই শতাংশ বা দুই হাজার ১৮০ কোটি টাকা।
গত সপ্তাহে ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির দর ৫৯ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়েছে। তালিকায় এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা এসইএমএল আইবিবিএল শরীয়াহ ফান্ডের দর ৫৮ দশমিক ৮২ শতাংশ, ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৫৬ দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২৫ দশমিক ৯৭ শতাংশ বেড়েছে। প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২৫ শতাংশ এবং আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ডের স্কিম ওয়ানের দর ২৩ দশমিক ২১ শতাংশ বেড়েছে। এছাড়া এসইএমএল লেকচার ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দর ২২ দশমিক ৫৫ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল সেকেন্ড মিউচুয়াল ফান্ডের দর ১৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ, এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর ১৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ, সিএপিএম আইবিবিএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ১৮ দশমিক ৫৬ শতাংশ বেড়েছে।
অন্যদিকে ১৭ দশমিক ৭০ শতাংশ কমে সাপ্তাহিক দরপতনের শীর্ষে অবস্থান করে মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ। বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানির দর ১৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ, হাইডেলবার্গ সিমেন্টের দর ১১ দশমিক ৫৩ শতাংশ, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দর ২১ দশমিক ৪৭ শতাংশ, দেশ গার্মেন্টের দর ১০ দশমিক ৮২ শতাংশ, মেঘনা কনডেন্সড মিল্কের দর ১০ দশমিক ২৪ শতাংশ, বিডি অটোকারসের দর ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ, জিলবাংলা সুগার মিলসের দর ৯ দশমিক ৬৩ শতাংশ, জেমিনী সি ফুডের দর ৯ দশমিক ৪২ শতাংশ, স্টাইল ক্রাফটের দর আট দশমিক ৮১ শতাংশ কমেছে।
ডিএসইতে টার্নওভারের দিক থেকে শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো ফরচুন সুজ, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, স্কয়ার ফার্মা, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, সি পার্ল রিসোর্ট, মুন্নু সিরামিক, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি।
অন্যদিকে দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩১৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৭টির, কমেছে ১৬৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৩টির দর।
সিএসইতে গত সপ্তাহে সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স কমেছে দশমিক শূন্য সাত শতাংশ। এছাড়া সিএএসপিআই সূচক কমেছে দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ, সিএসই৫০ সূচক বেড়েছে দশমিক ২০ শতাংশ, সিএসআই সূচক দশমিক ৪৯ শতাংশ ও সিএসই৩০ সূচক দশমিক ৭২ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গেল সপ্তাহে টার্নওভারের পরিমাণ দাঁড়ায় ৯৬ কোটি ১৮ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৮৯ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। লেনদেন বেড়েছে ছয় কোটি ছয় কোটি ৭১ লাখ টাকা।
৫৮ দশমিক ৭৬ শতাংশ বেড়ে সিএসইতে সাপ্তাহিক টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড। এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ডের দর ৫৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ, ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৪৬ দশমিক ৯৬ শতাংশ বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোতে ছিল ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৪৫ দশমিক ৭১ শতাংশ, প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল মিউচুয়াল ফান্ড ২৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ, সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান ২৫ দশমিক ২৭ শতাংশ, এসইএমএল লেকাচার ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দর ২১ দশমিক ১৫ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড ২০ শতাংশ, আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউুচয়াল ফান্ড ১৯ দশমিক ২৯ শতাংশ ও গ্রীন ডেল্টা মিউচুয়াল ফান্ড ১৯ দশমিক ১৭ শতাংশ বেড়েছে।
অন্যদিকে টপ টেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে বিডি ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, ডেল্টা স্পিনার্স, খুলনা প্রিন্টিং ও প্যাকেজিং, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড এয়ার, মিথুন নিটিং, ইমাম বাটন, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্সুরেন্স।
সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো বিএসআরএম স্টিল, ডরিন পাওয়ার, ব্রাক ব্যাংক, সি পার্ল রিসোর্টস, বেক্সিমকো লিমিটেড, রানার অটোমোবাইল, অরিয়ন ফার্মা, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, সিলকো ফার্মা, বসুন্ধরা পেপার মিলস।

সর্বশেষ..