কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

ডিএসইতে সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতনে সূচকের পতন হলেও লেনদেন আগের কার্যদিবসের তুলনায় বেড়েছে। গতকাল সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭ দশমিক ১৬ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৪ শতাংশ কমে চার হাজার ৯৭১ দশমিক ৬১ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৪ দশমিক ৭১ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৪১ শতাংশ কমে এক হাজার ১২১ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ১০ দশমিক ৪০ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৬১ শতাংশ কমে এক হাজার ৬৯০ দশমিক ৭৮ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় এক হাজার ৩৪ কোটি ৪২ লাখ ২৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৮৮০ কোটি ৫২ লাখ ৩৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৫৩ কোটি ৮৯ লাখ ৮৯ হাজার টাকার। এদিন ৩৯ কোটি ১৬ লাখ ৬৭ হাজার ৯৬৭টি শেয়ার দুই লাখ পাঁচ হাজার ১৯৭ বার হাতবদল হয়।

এদিন মোট ৩৫৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০৬টির এবং কমেছে ২১০টির। বাকি ৪১টি কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্র্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৬০৩ কোটি ৬৮ লাখ ১৭ হাজার টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৯৫ হাজার ২৫৫ কোটি ৩১ লাখ ৪০ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে সন্ধানী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির ৪৩ কোটি ৫৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৩ টাকা ১০ পয়সা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২৮ কোটি ৯৬ লাখ ৩১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর এক টাকা ৭০ পয়সা বেড়েছে। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ২৭ কোটি ৩১ লাখ ৩৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ২০ পয়সা বেড়েছে। এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের ২৫ কোটি ৮৮ লাখ ৭০ হাজার টাকার, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২৫ কোটি ১৪ লাখ ১৩ হাজার টাকার, রূপালী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২০ কোটি ২৮ লাখ ৫৮ হাজার টাকার, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের ১৮ কোটি ৭০ লাখ ১৮ হাজার টাকার, এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ১৮ কোটি ৩৯ লাখ ৪৫ হাজার টাকার, পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১৮ কোটি দুই লাখ ৫৫ হাজার টাকার এবং প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১৭ কোটি ৬৮ লাখ ৭৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ছিল এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। জিএসপি ফাইন্যান্স কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেডের ১০ শতাংশ, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ, সন্ধানী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, বে লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৭১ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স লিমিটেডের ৯ দশমিক ৬০ শতাংশ ও ইসলামিক ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৫৫ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে ৮ দশমিক ৯৭ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে রিং শাইন টেক্সটাইলস লিমিটেড। দুলামিয়া কটন মিলস লিমিটেডের ৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ, সাভার রিফ্রাক্টরিজ লিমিটেডের দর ৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ, আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেডের ৭ দশমিক ৩১ শতাংশ, আরামিট সিমেন্ট লিমিটেডের ছয় শতাংশ ও ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দর ৫ দশমিক ৭৭ শতাংশ শেয়ারদর কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ১৬ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৯ শতাংশ কমে আট হাজার ৫০৬ দশমিক ৯৬ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৩ দশমিক ৩৪ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৬ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ১৮৬ দশমিক ৫৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৯০টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন করা হয়েছে। দর বেড়েছে ১০৪টির, কমেছে ১৫৬টির এবং ৩০টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩১ কোটি ৪২ লাখ ৩৮ হাজার ৬৩ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২৭ কোটি ৪৬ লাখ ৭৫ হাজার ৬১০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে তিন কোটি ৯৫ লাখ ৬২ হাজার ৪৫৩ টাকা।

সিএসইতে এদিন লেনদেনের শীর্ষে ছিল এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির তিন কোটি ৮২ লাখ ৩০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সন্ধানী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দুই কোটি ৫৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। কেয়া কসমেটিকস লিমিটেডের এক কোটি ৪৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের এক কোটি ১৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের এক কোটি আট লাখ ২০ হাজার, এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ৭০ লাখ ৯০ হাজার, ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৬৬ লাখ ৬০ হাজার, জিএসপি ফাইন্যান্স কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেডের ৬৩ লাখ ১০ হাজার ও সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫২ লাখ ৭০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..