কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

ডিএসইতে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে ২০২ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সিংহভাগ শেয়ারের দর কমলেও সূচক বেড়েছে। তবে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ২০২ কোটি টাকা কমেছে। এদিন মোট ৩৬০টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১৩২টির এবং কমেছে ১৪৩টির। বাকি ৮৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় এক হাজার ২১৩ কোটি ৪৫ লাখ ৫৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৪১৬ কোটি চার লাখ ৬১ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। অর্থাৎ লেনদেন কমেছে ২০২ কোটি ৫৯ লাখ তিন হাজার টাকা। এদিন ৩৫ কোটি ১০ লাখ ২৮ হাজার ১০৯টি শেয়ার এক লাখ ৮৮ হাজার ১৭১ বার হাতবদল হয়। গতকাল লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বাড়লেও লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কমেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আট দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৪ শতাংশ বেড়ে পাঁচ হাজার ৮৩৬ দশমিক ১৮ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক চার দশমিক ৫৮ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৩৫ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ২৯৪ দশমিক ৬৪ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক শূন্য দশমিক ৯৪ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক শূন্য চার শতাংশ বেড়ে দুই হাজার ২০৮ দশমিক ৪৪ পয়েন্টে স্থির হয়। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৪০৯ কোটি ২৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৯২ হাজার ২৮৯ কোটি পাঁচ লাখ ২১ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে রবি আজিয়াটা লিমিটেড। কোম্পানিটির ১৫৪ কোটি ৪১ লাখ ৯৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর এক টাকা ৪০ পয়সা কমেছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের ১১৮ কোটি ২২ লাখ ৮৮ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ৬০ পয়সা বেড়েছে। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৮৩ কোটি ১০ লাখ ৭৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর দুই টাকা ৯০ পয়সা বেড়েছে।

এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা সামিট পাওয়ার লিমিটেডের ৬৬ কোটি ১৫ লাখ ১৬ হাজার টাকার, জিবিবি পাওয়ার লিমিটেডের ৪৫ কোটি ৮৩ লাখ ৯২ হাজার টাকার, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৪৩ কোটি ছয় লাখ ২২ হাজার, সিটি ব্যাংক লিমিটেডের ৩৮ কোটি ১০ লাখ ৪৫ হাজার, বারাকা পাওয়ার লিমিটেডের ২৬ কোটি ১০ লাখ ৪০ হাজার, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের ২২ কোটি ২৭ লাখ ৫৯ হাজার টাকার এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ২১ কোটি দুই লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে ছিল এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন লিমিটেড। সিএপিএম আইবিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের ৯ দশমিক ৪২ শতাংশ, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন লিমিটেডের ৯ দশমিক ১৪ শতাংশ, জিবিবি পাওয়ার লিমিটেডের ৯ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের সাত দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। হাইডেলবার্গ সিমেন্ট বাংলাদেশ লিমিটেডের সাত দশমিক ৬৮ শতাংশ, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সাত দশমিক ৩৯ শতাংশ, বাংলাদেশ ল্যাম্পস লিমিটেডের ছয় দশমিক ৮৫ শতাংশ, সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের ছয় দশমিক ৬০ শতাংশ এবং বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের ছয় দশমিক ৫৯ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ২১ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২১ শতাংশ বেড়ে ১০ হাজার ২৭২ দশমিক ৪৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৪ দশমিক শূন্য ছয় পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২০ শতাংশ বেড়ে ১৭ হাজার ২১ দশমিক শূন্য আট পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৫৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ৮৯টির, কমেছে ১১২টির এবং ৫৫টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৮ কোটি ৩৩ লাখ ছয় হাজার ২৭০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৮ কোটি ৯৭ লাখ ৩৮ হাজার ৩২৮ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ৬৪ লাখ ৩২ হাজার ৫৮ টাকার।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বরি আজিয়াটা লিমিটেড। কোম্পানিটির ২০ কোটি ১১ লাখ ৩০ হাজার হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..