প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ডিএসইতে ৫২% সিকিউরিটিজের দর কমলেও সূচকের উত্থান অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৫২ শতাংশের বেশি সিকিউরিটিজের শেয়ারদর কমলেও গতকাল সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেও সূচকের উত্থান অব্যাহত ছিল। তবে আগের দিনের চেয়ে লেনদেন সামান্য কমেছে।

এদিকে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) পুঁজিবাজারে ফের ফ্লোর প্রাইস আরোপ এবং সম্প্রতি পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা (এক্সপোজার লিমিট) নির্ধারণের ক্ষেত্রে শেয়ারের ক্রয়মূল্যকে ‘বাজারমূল্য’ হিসেবে বিবেচনা করা হবেÑএমন সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে সপ্তাহজুড়ে সূচকের উত্থান অব্যাহত রয়েছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, গতকাল পুঁজিবাজারে লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সূচকের উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১২ দশমিক ১৪ পয়েন্ট বা  দশমিক ১৯ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৩১২ দশমিক ২৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ৪ দশমিক ৬৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৪ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৩৭৫ দশমিক ১৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ৬ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট বা দশমিক ২৮ শতাংশ বেড়ে ২ হাজার ২৬৫ দশমিক ২০ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইতে লেনদেন হয় এক হাজার ১৯০ কোটি ২৬ লাখ ৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ১৯৫ কোটি ৪১ লাখ ৩৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ৫ কোটি ১৫ লাখ টাকা। এদিন ৩৩ কোটি ৬১ লাখ ৪৭ হাজার ৬৬৪টি শেয়ার ২ লাখ ৬ হাজার ৮৪১ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৮১ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১২৯টির, কমেছে ১৯৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৩টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি অব বাংলাদেশ (বেক্সিমকো) লিমিটেড। কোম্পানিটির ১০০ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৯০ পয়সা। এরপর অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৫৫ কোটি ৮৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১২ টাকা ২০ পয়সা। মালেক স্পিনিং মিলস লিমিটেডের ৪৯ কোটি ৫৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১ টাকা ৪০ পয়সা। ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের ৩১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৪ টাকা। ম্যাকসন্স স্পিনিং মিলস লিমিটেডের ৩০ কোটি ৯৮ লাখ, দর বেড়েছে ১ টাকা ৮০ পয়সা। সোনালী পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস লিমিটেডের ২৯ কোটি ২৯ লাখ, দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। একমি পেস্টিসাইডস লিমিটেডের ২৮ কোটি ২৭ লাখ, দর বেড়েছে ৩ টাকা ৮০ পয়সা। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ১৯ কোটি ৪৭ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৭০ পয়সা।

১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে একমি পেস্টিসাইডস লিমিটেড। ইউনিয়ন ক্যাপিটাল লিমিটেডের দর ১০ শতাংশ, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৪ শতাংশ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ এবং খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেডের ৮ দশমিক ৫১ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৩৫ দশমিক ৯৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৩২ শতাংশ বেড়ে ১১ হাজার ১০৯ দশমিক ৬৭ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৭ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৩১ শতাংশ বেড়ে ১৮ হাজার ৫৪০ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৯৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৭টির, কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৭টির দর। সিএসইতে এদিন ২১ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়।