প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ডিএসই ও সিএসইতে ৭৮৭ কোটি টাকার লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল সোমবার ডিএসই ও সিএসইতে ৭৮৭ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্যসূচক বেড়েছে। তবে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের কিছুটা পতন হয়েছে। এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। বিষয়টিকে তারা দর সংশোধন হিসেবে দেখেছেন।

গতকালের বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, এদিন ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৮.৪৭ পয়েন্ট বেড়ে ৪৮৬৯.৬০ পয়েন্টে দঁাঁড়িয়েছে। এটি রোববার ৩১.৬৯ পয়েন্ট কমেছিল। এদিন সিএসইর সিএসসিএক্স সূচক ৩.৮০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৯০৮৯.১০ পয়েন্টে। আগের দিন এ সূচক কমেছিল ৫৮.৭৬ পয়েন্ট।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে ৭৪১ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৮২৩ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ৮২ কোটি ৪০ লাখ টাকার বা ১০ শতাংশ।

ডিএসইতে গতকাল ৩২৫টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৩১টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে, ১৪১টির কমেছে এবং ৫৩টি কোম্পানির দর অপরিবর্তিত ছিল।

অন্যদিকে গতকাল টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমসের শেয়ার। এদিন কোম্পানিটির ৪৭ কোটি সাত লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা এমজেএল বাংলাদেশ’র ২৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২১ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে আরএসআরএম স্টিল।

লেনদেনে এরপর রয়েছে আইডিএলসি, ইফাদ অটোস, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ, ন্যাশনাল টি, এএফসি এগ্রো বায়োটেক, সিএমসি কামাল ও এ্যাপোলো ইস্পাত। অন্যদিকে গতকাল দর কমার শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হচ্ছে জিলবাংলা সুগার, দুলামিয়া কটন, মডার্ন ডায়িং, পদ্মা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড এয়ার, বিডি ওয়েলডিং, শ্যামপুর সুগার ও ফার্¯¡ বাংলাদেশ ফিকসড ইনকাম ফান্ড।

অন্যদিকে খাতভিত্তিক লেনদেনে আগের দিনের মতো গতকালও সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে প্রকৌশল খাতের কোম্পানির শেয়ার। মোট লেনদেনে এ খাতের অংশগ্রহণ ছিল প্রায় ২২ শতাংশ। আগের দিন এটি ছিল ২৩ শতাংশ। এর পরে ছিল বস্ত্র খাত। মোট লেনদেনে এ খাতের অংশগ্রহণ আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে ২ শতাংশের বেশি। গতকাল এ খাতের অবদান ছিল ১৭ দশমিক ৩৬ শতাংশ। আগের দিন যা ছিল ১৫ দশমিক ২১ শতাংশ। আগের দিনের মতো গতকাল এগিয়ে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানিগুলো। লেনদেনে এ খাতের অবস্থান ছিল ১৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ। এর পরের অবস্থানে ছিল খাদ্য খাত। মোট লেনদেনে এ খাতের অবদান ছিল ৯ দশমিক ২১ শতাংশ। অন্যদিকে গতকাল মোট লেনদেনের প্রায় ৭ শতাংশ ছিল ব্যাংকিং খাতের অবদান।

অন্যদিকে এদিন সিএসইতে ৪৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর পরিমাণ আগের দিন ছিল ৪৭ কোটি ৪১ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৪৯টি ইস্যুর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৬টির, কমেছে ১৩১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩২ টির।

এদিনে সিএসইতে দর বৃদ্ধির শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো গোল্ডেন হার্ভেস্ট, ঢাকা ইন্স্যুরেন্স, জনতা ইন্স্যুরেন্স, হা-ওয়েল টেক্সটাইল, আরএসআরএম স্টিল, এনটিসি, বিবিএস ও বিডি ল্যাম্পস।

অন্যদিকে দাম কমার শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স, বিডি ওয়েলডিং, ম্যারিকো ও সোনারগাঁও টেক্সটাইল।