দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

ঢাকার দুই সিটির ভোটে থাকবে ৬৫ প্লাটুন বিজিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় ৬৫ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) মোতায়েন করা হবে। তারা ভোটের আগে ও পরে মোট চার দিন দায়িত্ব পালন করবেন। গতকাল ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখা জানিয়েছে, এবারের নির্বাচনে ৪০ হাজারের মতো ফোর্স নিয়োজিত থাকবে।

ঢাকা উত্তর সিটিতে ২৭ প্লাটুন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে ৩৮ প্লাটুন বিজিবি স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে।

প্রতি দুটি সাধারণ ওয়ার্ডে এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন থাকবে। বিজিবির প্রতিটি টিমের সঙ্গে মোতায়েনকালে, অর্থাৎ জানুয়ারির ৩০ তারিখ থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত একজন করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৫৪ জন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৭৬ জনসহ ১৩০ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট প্রয়োজন হবে। আর বিজিবির এক প্লাটুনে দুটি টিম গঠন করার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির।

নারী ভোটকেন্দ্রে ও ভোটকক্ষে নারী এবং পুরুষ ভোটকেন্দ্র ও ভোটকক্ষে পুরুষ অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য নিয়োগ করা হবে। ভোটকেন্দ্রে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ভোটগ্রহণের দিন এবং এর আগে দুই দিন ও পরে এক দিনসহ মোট চার দিনের জন্য নিয়োজিত থাকবে।

ভোটকেন্দ্রে অঙ্গীভূত আনসার ও ভিডিপি পাঁচ দিনের জন্য নিয়োজিত থাকবে। ভোটগ্রহণের আগের দিন রাতে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার সঙ্গে ভোটকেন্দ্রের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত বাহিনীর সব সদস্য ভোটকেন্দ্রে অবস্থান করবেন।

এছাড়া মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স ভোট গ্রহণের দিন এবং তার আগে দুই দিন ও পরে এক দিন মোট চার দিন, অর্থাৎ ৩০ জানুয়ারি থেকে ফেব্রুয়ারির ২ তারিখ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবে। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ভোটকেন্দ্রের বাইরে র?্যাব-পুলিশের টিম সংশ্লিষ্ট ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবে স্থানীয় চাহিদা, ভোটকেন্দ্রের অবস্থান ও ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা, ওয়ার্ড বিন্যাস প্রভৃতি বিবেচনায় এবং বাস্তবতার নিরিখে। রিটার্নিং অফিসার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ঢাকা ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে আলোচনা করে তাৎক্ষণিকভাবে ভোটকেন্দ্রের ফোর্স এবং মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্সের সংখ্যা হ্রাসবৃদ্ধি করতে পারবেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জন্য পাঁচ প্লাটুন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জন্য পাঁচ প্লাটুন বিজিবি সুবিধাজনক স্থানে রিজার্ভ ফোর্স হিসেবে নিয়োজিত রাখা হবে। সেইসঙ্গে উভয় সিটি করপোরেশনে পাঁচটি করে র?্যাবের রিজার্ভ টিম নিয়োজিত রাখতে হবে। মোবাইল-স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নিয়োজিত প্রতিটি টিম, বিশেষ করে বিজিবির টহলদলে একজন করে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করতে হবে।

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবারের দুই সিটি ভোটে সাধারণ কেন্দ্রে ১৬ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ১৮ জন করে বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাধারণ ওয়ার্ড ৫৪, সংরক্ষিত ১৮, মোট ভোটকেন্দ্র এক হাজার ৩১৮, মোট ভোটকক্ষের সংখ্যা সাত হাজার ৮৪৬ এবং মোট ভোটার ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৫৬৭ জন ও মহিলা ভোটার ১৪ লাখ ৬০ হাজার ৭০৬ জন রয়েছেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাধারণ ওয়ার্ড ৭৫, সংরক্ষিত ২৫, মোট ভোট কেন্দ্র এক হাজার ১৫০, মোট ভোটকক্ষের সংখ্যা ছয় হাজার ৫৮৮ ও মোট ভোটার ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১২ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪১ জন ও মহিলা ভোটার ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৫৩ জন রয়েছেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..