প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

তিন জেলায় পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ১২

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বগুড়া, বরিশাল ও নীলফামারীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনা এবং ট্রেনে কাটা পড়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ জন, বরিশালে ২ জন ও নীলফামারীতে ট্রেনে কাটা পড়ে আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বগুড়া: আমদের বগুড়া প্রতিনিধি জানায়, শেরপুরে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও একজন। নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী। গতকাল বিকাল সোয়া ৫টার দিকে বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে মির্জাপুর নামক স্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহত ৫ জনের মধ্যে একজন নারী ও ৪ জন পুরুষ।

শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, হানিফ পরিবহনের একটি বাস ঢাকা থেকে রংপুরের দিকে যাচ্ছিল। বিকাল সোয়া ৫টার দিকে শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর আমতলা নামক স্থানে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশাটি দুমড়েমুচড়ে যায় এবং চালকসহ ৫ জন যাত্রী নিহত হন। এছাড়া জেলার গাবতলীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বিএনপি নেতা আশরাফুল হক গোল্লা (৫৫) নিহত হয়েছেন।

বরিশাল: আমদের বরিশাল প্রতিনিধি জানান,  গৌরনদীতে করোনার ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে বাসচাপায় দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে। আরেক বন্ধুকে মুমূর্ষু অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গতকাল সকালে উপজেলার বার্থী তাঁরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেনÑবার্থী তাঁরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র অন্তর বেপারি (১৫) ও রেদোয়ান ফকির (১৫)। কাইয়ুম হোসেন ঘরামি (১৫) নামে আরেকজন আহত হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তিন বন্ধু অন্তর বেপারির মোটরসাইকেলে চড়ে ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার বার্থী বাজার থেকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উদ্দেশে রওনা হয়। তাদের বহনকারী মোটরসাইকেলটি বরিশাল-ঢাকা মহাসড়ক ধরে বার্থী কলেজের সামনে পৌঁছালে বরগুনা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে আসা বলেশ্বর পরিবহনের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ওইতিন যুবক গুরুতর আহত হলে হাসপাতালে নেয়ার পর তাদের মধ্যে দুজনের মৃত্যু হয়।

নীলফামারী: আমাদের নীলফামারী প্রতিনিধি জানান,  দারোয়ানীতে লেভেলক্রসিংয়ে সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে উত্তরা ইপিজেডের চার শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় গুরুতর আহত হয়েছেন অটোরিকশার চালকসহ আরও পাঁচ শ্রমিক। গতকাল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে অটোরিকশাযোগে উত্তরা ইপিজেডের ৮ জন নারী শ্রমিক কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন। অটোরিকশাটি দারোয়ানী লেভেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চিলাহাটিগামী সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটি অটোরিকশাটিকে ধাক্কা দেয়। এ সময় অটোরিকশাটি কয়েক ফুট দূরে ছিটকে পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই শেফালী বেগম (৩৫) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে সাহেরা বেগম (৩৩), রোমানা আক্তারের (২৫) ও মিনারা বেগম (৩১) নামের আরও তিনজন মারা যান।