Print Date & Time : 6 December 2020 Sunday 4:10 am

তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে এশিয়ার পুঁজিবাজার

প্রকাশ: October 28, 2019 সময়- 10:47 pm

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনে প্রাথমিক একটি চুক্তির দ্বারপ্রান্তে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র-চীন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের করপোরেট আয় বৃদ্ধির খবরে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। গতকাল সোমবার এশিয়ার পুঁজিবাজার সূচক তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছায়। খবর: রয়টার্স।

গতকাল জাপান বাদে এশিয়ার সার্বিক সূচক এমএসসিআই আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে দশমিক পাঁচ শতাংশ। গত জুলাইয়ের শেষের দিকের তুলনায় এদিনই ছিল সূচকের সর্বোচ্চ অবস্থান। এতে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিল হংকং ও চীনের পুঁজিবাজারের। চীনের সাংহাই সূচক এ দিন বেড়েছে দশমিক ৮৫ শতাংশ এবং হংকংয়ের হ্যাংসেং সূচকও বেড়েছে প্রায় এক শতাংশ। অন্য বাজারগুলোর মধ্যে জাপানের নিক্কেই সূচক বেড়েছে দশমিক ৩০ শতাংশ এবং ভারতের সেনসেক্স সূচক বেড়েছে দশমিক ৪৯ শতাংশ। এ অঞ্চলের অন্য প্রধান সূচকগুলোও ছিল ঊর্ধ্বমুখী ধারায়। এছাড়া আগের দিন ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান সূচকগুলোও ঊর্ধ্বমুখী ছিল।

দীর্ঘদিনের বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসন করে একটি চুক্তির বিষয়ে ‘চূড়ান্তকরণের কাছাকাছি’ পৌঁছেছে ওয়াশিংটন ও বেইজিং। গতকাল শুক্রবার দুদেশের কর্মকর্তারা চুক্তির বিষয়ে টেলিফোনে আলোচনা করেছেন। আলোচনার পর এক বিবৃতিতে এ সংকট নিরসনে আলোচনা চলবে বলে জানানো হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে পুঁজিবাজারে।

চীনের সঙ্গে বিপুল বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে গত বছর থেকে বেইজিংয়ের রফতানি পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। এ পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে বেইজিংও মার্কিন পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে। এ বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনে চলতি বছরের মে মাসে ওয়াশিংটন-বেইজিং আলোচনায় বসলেও কোনো চুক্তি ছাড়াই তা শেষ হয়। পরে চলতি মাসের মাঝামাঝি যুক্তরাষ্ট্রের রাজস্বমন্ত্রী স্টিভেন মুচিন বলেন, আগামী মাসে দুদেশের প্রেসিডেন্টের মধ্যে প্রথম ধাপের চুক্তিস্বাক্ষরের জন্য খসড়া চূড়ান্ত করতে দুদেশের বাণিজ্য প্রতিনিধিরা কাজ করছেন। গত ১১ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আশা প্রকাশ করেন, অচিরেই দুদেশের মধ্যে প্রথম পর্যায়ের চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে।

টেলিফোনে আলোচনার পর বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বিশেষ কিছু বিষয়ে অগ্রগতি হয়েছে। চুক্তির কিছু অধ্যায়ের বিষয় চূড়ান্তকরণের কাছাকাছি পৌঁছেছে দুই পক্ষ। মধ্যম শ্রেণির কর্মকর্তাদের মধ্যে আলোচনা চলবে। নিকট-ভবিষ্যতে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।’ গত শনিবার সকালে চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘মূলত বাণিজ্য চুক্তির কিছু অংশ সম্পন্ন হয়েছে। যার ‘কৌশলগত পরামর্শ’ বিষয় নিশ্চিত করেছে বেইজিং।’ তবে এ বিষয়ের অগ্রগতি নিয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানায়নি যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য সংস্থা ইউএসটিআর।