প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

তৃণমূলের ভাগ্যের পরিবর্তন করাই ছিল আমাদের লক্ষ্য : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের উন্নয়নের পরিকল্পনা একেবারে তৃণমূল থেকেই। আমরা এভাবে ভাবিনি যেন ধনীরা আরও ধনী হোক। আমি নিজে যাদের দেখেছি গায়ে কাপড় নেই। মনে হয় যেন একেকটা কঙ্কাল হাঁটছে। তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন করাটাই ছিল আমাদের লক্ষ্য।
আজ রোববার মন্ত্রণালয় ও বিভাগসমূহের ২০২২-২৩ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর এবং ‘বার্ষিক কর্মসম্পাদন পুরস্কার-২০২২’ ও ‘শুদ্ধাচার পুরস্কার-২০২২’ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি যুক্ত হন।
শেখ হাসিনা বলেন, উন্নয়ন কাজের সঙ্গে যারা জড়িত ছিলেন, সবাইকে আমি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। আপনারা আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করেছেন বলেই আমরা কাজটা করতে পেরেছি।
আমাদের লক্ষ্য হলো আমরা যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসেছি, সেটা আমরা বাস্তবায়ন করতে চাই। আমরা নির্বাচনে অংশ নেয়ার সময় একটি নির্বাচনি ইশতেহার ঘোষণা করে থাকি।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, উন্নত দেশগুলো তাদের নাগরিকদের বিনা পয়সায় ভ্যাকসিন দেয়নি; কিন্তুআমরা বিনা পয়সায় সবাইকে করোনা টেস্ট ও ভ্যাকসিন দিয়েছি। বুস্টার ডোজও দেয়া হচ্ছে। আমি আশা করি সবাই এ ভ্যাকসিন নেবেন।
এ সময় মুজিববর্ষের গৃহনির্মাণ কর্মসূচি বাস্তবায়নে জড়িতদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান সরকারপ্রধান।
তিনি বলেন, ‘করোনা মহামারি যেতে না যেতেই রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দা সৃষ্টি করেছে। আর আমাদের মতো দেশে যুদ্ধের প্রভাব আরও বেশি পড়েছে। এ ক্ষেত্রে আমি সরকারি কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানাই। কারণ, করোনা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেও তাদের আন্তরিকতার কারণে দেশ এগিয়ে চলেছে।’