Print Date & Time : 30 June 2022 Thursday 2:16 am

তৃতীয় প্রান্তিকে ইপিএস বেড়েছে ভিএফএস থ্রেড ডায়িংয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ, ২০২২) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি ভিএফএস থ্রেড ডায়িং লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫১ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪১ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ারপ্রতি আয় বেড়েছে ১০ পয়সা। জুলাই ২০২১ থেকে মার্চ ২০২২ পর্যন্ত প্রথম ৯ মাসের হিসাবে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৪০ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ২৭ পয়সা। ২০২২ সালের ৩১ মার্চ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৩৪ পয়সা। এছাড়া প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে এক টাকা ৮৭ পয়সা।

সর্বশেষ কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ৩০ জুন, ২০২১ সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১১ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৫০ পয়সা। ৩০ জুন, ২০২১ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) ছিল ১৮ টাকা ৭০ পয়সা।

বস্ত্র খাতের ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ২০১৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১০৫ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। কোম্পানির রিজার্ভে রয়েছে ৯১ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ১০ কোটি ৫৫ লাখ ৮০ হাজার ৫৫টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩০ দশমিক ৮৮ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১৩ দশমিক ৯৭ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক ২৯ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৫৪ দশমিক ৮৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর শূন্য দশমিক ৮৩ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ২৪ টাকায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ২৪ টাকা। দিনজুড়ে ১৭ লাখ ৩২ হাজার ৬৫৭ শেয়ার মোট ৮৭২ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৪ কোটি ১৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৩ টাকা ৮০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৪ টাকা ৮০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ১৭ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ৩১ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে হাতবদল হয়।

সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) ১৬ আর অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) ১২ দশমিক ৮৬।