প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

তৃতীয় প্রান্তিকে আয়ের প্রভাব আমাজনের শেয়ারদর বৃদ্ধি

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় মার্কিন টেক জায়ান্ট আমাজনের আয় বেড়েছে ৩৪ শতাংশ। বিশ্লেষকদের প্রত্যাশার তুলনায় এটি বেশি। চতুর্থ প্রান্তিকেও ইতিবাচক ফলের প্রত্যাশা করছে প্রতিষ্ঠানটি। কোম্পানির আয়ের এ খবরে বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারমূল্য সাত শতাংশের বেশি বেড়ে যায়। খবর রয়টার্স।

তৃতীয় প্রান্তিকে আমাজনের আয় হয়েছে চার হাজার ৩৭০ কোটি ডলার, যেখানে রয়টার্সের বিশ্লেষণে প্রত্যাশিত অংকটা ছিল চার হাজার ২১৪ কোটি ডলার। একই বিশ্লেষণে প্রতি শেয়ারের তিন সেন্ট আয়ের প্রত্যাশা করেছিল, যেখানে আমাজনের ক্ষেত্রে অংকটা হয়েছে ৫২ সেন্ট। আমাজন ওয়েব সার্ভিসেসের আয় ৪৫১ কোটি ডলার হবে বলে আশা প্রকাশ করে হলেও প্রতিষ্ঠানটি এ বিভাগ থেকে ৪৫৮ কোটি ডলার আয় করেছে।

ছুটির মৌসুম সামনে থাকায় তৃতীয় প্রান্তিকে আমাজনের বিনিয়োগ বেশি হয়ে থাকে। এ কারণে এ প্রান্তিকে অপেক্ষাকৃত কম লাভের ধারণা করছিলেন বিনিয়োগকারীরা। কিন্তু উত্তর কোরিয়ায় শক্তিশালী আয় ও আমাজন ওয়েব সার্ভিসেস থেকে নতুন এলাকাগুলোয় ব্যয় ভারসাম্যে চলে এসেছে।

২০১৬ সালের একই সময়ের তুলনায় তৃতীয় প্রান্তিকে আমাজনের আয় বেড়েছে ৩৪ শতাংশ, যেখানে অবদান রয়েছে হোল ফুডস বিভাগেরও। চলতি বছর আগস্টে আমাজনের কিনে নেওয়া এ প্রতিষ্ঠান থেকে আয় হয়েছে ১৩০ কোটি ডলার। উত্তর আমেরিকায় প্রতিষ্ঠানটির আয় হয়েছে দুই হাজার ৫৪০ কোটি ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় ৩৫ শতাংশ বেশি। আন্তর্জাতিক আয় ২৯ শতাংশ বেড়ে ১৩৭০ কোটি ডলার হয়।

চতুর্থ প্রান্তিকে পাঁচ হাজার ৬০০ থেকে ছয় হাজার ৫০ কোটি ডলার আয়ের নির্দেশনা দিয়েছে আমাজন। এক্ষেত্রে ওয়াল স্ট্রিট বিশ্লেষকদের পূর্বাভাসে অঙ্কটা পাঁচ হাজার ৮৯০ কোটি ডলার।