শেষ পাতা

দয়া করে ঘরের বাইরে যাবেন না: মুখ্য সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিশ্বজুড়ে মহামারির আকার নেওয়া নভেল করোনাভাইরাস বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়ায় এ রোগ থেকে বাঁচতে সবাইকে বাসায় থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস।

গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করে এই আহ্বান জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিমও এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব বলেন, ‘আগামী ২৬ মার্চের সরকারি ছুটি এবং ২৭ ও ২৮  মার্চের সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ৩ ও ৪ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটির দিন এই বন্ধের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে। এর মানে হচ্ছে, ছুটির মধ্যে সব কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাই বাসায় থাকবেন।’

এ ছুটি ভোগ বা উৎসব ভোগের জন্য দেওয়া হয়নিÑএ কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটি করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করার জন্য দেওয়া হয়েছে। সব কর্মকর্তা-কর্মচারী ছুটি চলাকালে কর্মস্থল ত্যাগ করবেন না, সবাই বাসায় থাকবেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আপনাদের অনুরোধ করছি, সবাই ঘরে থাকুন। দয়া করে ঘরের বাইরে যাবেন না। জরুরি প্রযোজনে যদি যেতে হয় তাহলেও স্যানিটাইজেশন এবং সব ধরনের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেই যাবেন। অনুগ্রহ করে বিষয়টি পালন করার জন্য সবাইকে অনুরোধ করছি।’

সরকারের তরফ থেকে ট্রেন, বাস ও লঞ্চে যাত্রী বহন বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়ে আহমদ কায়কাউস বলেন, ‘অর্থাৎ আপনারা যে যে-ই জায়গায় আছেন, সবাই আর স্থান ত্যাগ করবেন না। যারা গিয়েছেন তাদের অনুরোধ করবÑতারা যদি এরই মধ্যে গিয়ে থাকেন, ঘরের বাইরে যাবেন না।’

কাঁচাবাজার, খাবার ও ওষুধের দোকান এবং হাসপাতাল ও জরুরি সেবার যে বিষয়গুলো আছে সেগুলো এর আওতাবহির্ভূত থাকবে। তারা সব ধরনের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা  গ্রহণ করে তাদের সেবা দেবে।

সব সরকারি দপ্তরে অনলাইনে কাজ করার পদ্ধতি সরকার প্রবর্তন করেছে বলে জানিয়ে মুখ্য সচিব বলেন, ‘জরুরি কোনো প্রয়োজন যদি হয়, সেটি অনলাইনে করা যাবে। আপনাদের ছুটি চলাকালে যদি কোনো রকমের অসুবিধা হয়, সেটার জন্য সীমিত আকারে ব্যাংক চালু রাখার ঘোষণাও দেওয়া হয়েছে।’ 

তিনি বলেন, ‘আপনাদের যখনই কোনো প্রয়োজন হবে আমাদের লোকজন  বাড়ি বাড়ি যাবে। আমাদের স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা রয়েছেন। তারাও যোগাযোগ রক্ষা করছেন। এ রকম যদি কোনো প্রয়োজন হয়, তাহলে তারা সবাই পাশে দাঁড়াবেন।

‘কিন্তু জনগণের কাছে আমাদের বিনীত অনুরোধ, আপনারা দয়া করে বাসার বাইরে যাবেন না। এটি আমাদের এখন জাতীয়ভাবে সবার একসঙ্গে মোকাবিলা করার সময় এসেছে। আমরা সবাই একযোগে সেটি মোকাবিলা করব। আপনারা দয়া করে এই বিষয়ে ব্যত্যয় ঘটাবেন না।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..