প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

দলে ফিরতে লড়ছেন নাসির

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক: দারুণ খেলেছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে করেছিলেন চ্যাম্পিয়ন। তারপরও কোনো অদৃশ্য কারণে আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে জায়গা হয়নি নাসির হোসেনের। ছিলেন স্ট্যান্ডবাই হিসেবে। তবে বসে নেই ‘মিস্টার ফিনিশার’ খেতাব পাওয়া এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। জাতীয় দলে ফিরতে লড়ছেন তিনি। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে চোখ রাখছেন। এজন্য অনুশীলনে মনোযোগী টাইগার এ অলরাউন্ডার।

আগস্টের শেষ দিকে অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরে আসার কথা। অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাবে টিম টাইগার্স। দুই সিরিজকে সামনে রেখে মিরপুরে চলছে মুশফিকুর রহিম-মাশরাফি বিন মুর্তজাদের অনুশীলন। যেখানে শতভাগ উজাড় করে দিয়ে যাচ্ছেন নাসির। লক্ষ্য একটাই। জাতীয় দলের হারানো জায়গাটা ফিরে পাওয়া। কিন্তু টিম কম্বিনেশনের কারণে সেটা বেশ কঠিনই হবে তার জন্য, যা ভালো করেই জানা রয়েছে টাইগার এ অলরাউন্ডারের। গতকাল এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘দলে ফেরার জন্য আমি সিরিয়াস অনুশীলন করছি। যদিও সুযোগটা আমার হাতে নেই। আমার করণীয় যেটা, সেটা আমি করছি। এতটুকু বিশ্বাস আছে, আমি যেভাবে খেলছি সেভাবে খেলতে পারলে অবশ্যই জাতীয় দলে ফিরতে পারবো।’

আপাতত অনুশীলন ক্যাম্পে চোখ নাসিরের। এখান থেকে নিজের ফিটনেসটা আরও উন্নতি করতে চান তিনি। এজন্য নিয়োমিত কঠোর অনুশীলন করছেন টাইগার এ অলরাউন্ডার। ‘আমরা খেলোয়াড়, ভালো পারফর্ম করার জন্য ফিটনেস ৬০ ভাগ সাহায্য করে। আমি আমারটা ফিটনেস ট্রেনিং ক্যাম্প থেকে পাওয়ার চেষ্টা করছি। মনোযোগ আর প্রস্তুতি এখন ফিটনেস ট্রেনিং নিয়ে। ব্যাটিং-বোলিং শুরু করার পর সেখানেও ভালো করার চেষ্টা করবো।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্টের পাশাপাশি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে টিম টাইগার্স। তাই তো টেস্টের দিকে নয়, আপাতত রঙিন পোশাকের ক্রিকেটের দিকেই চোখ রাখছেন নাসির। এ নিয়ে গতকাল মিরপুরে যেমনটা বলছিলেন তিনি। ‘টেস্ট সিরিজ নিয়ে তেমন কোনো লক্ষ্য নেই। ওয়ানডেতে যদি আমি খেলি অবশ্যই দল আমার থেকে যা চায়, সেটাই করার চেষ্টা করবো।’

নাসিরের জায়গাটা আপাতত দখল করেছেন মোসাদ্দেক হোসেন ও সাব্বির রহমান। যাদের কারণেই টাইগার স্কোয়াডের বাইরে মিস্টার ফিনিসার। এমনটা অনেকেই ভেবে থাকেন। কিন্তু ব্যাপারটিকে নাসির দেখছেন পজিটিভ হিসেবে। ‘আমি মনে করি না আমার কোনো প্রতিদ্বন্দ্ব^ী আছে কিংবা কেউ কারো প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় দলে। ‘এখন তারা ভালো খেলছে (সাব্বির-মোসাদ্দেক)। দোয়া করি, জাতীয় দলে যারা আছে; তারা যেন আরও ভালো খেলে। জাতীয় দলের জায়গা সবার জন্য এবং সব সময় খোলা থাকবে। ভালো খেললে সুযোগ অবশ্যই আসবে।’

লম্বা সময় জাতীয় দলের বাইরে নাসির। মাঝে আয়ারল্যান্ড সফরে দলের সঙ্গী হয়েছিলেন তিনি। সে সময় কাছ থেকে দেখেছেন সতীর্থদের। অনেক বদলে গেছেন সবাই। দলের জন্য এখন সবাই যে যার জায়গা থেকে শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করে। অনুশীলনেও সবাই সিরিয়াস। যে কারণে একটা টিম হয়ে প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ঝাঁপিয়ে পড়ে টাইগাররা। ব্যাপারটাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন নাসির। সবার মতো করে নিজেকে তৈরি করছেন তিনি। ‘দলের মধ্যে আত্মবিশ্বাস আছে। সবাই এখন জেতার জন্য খেলে, কেউই হারের কথা চিন্তা করে না। দলের জন্য খেলে, এটা হচ্ছে মূল জিনিস। পাশাপাশি সবাই এখন অনেক কষ্ট করছে। ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন করছে। মূল অনুশীলন বাদেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা নেটে ব্যাটিং ও বোলিং করছে অনেকে। এখন যারা দলে আছে তারা সবাই দলের জন্য শতভাগ উজাড় করে দেয়।’