প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

দিনাজপুরে পায়ের রগ কেটে যুবককে হত্যা

প্রতিনিধি, হিলি (দিনাজপুর): দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় সৌরভ হোসেন (২৩) নামের এক যুবকের পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহতের পরিবারের দাবি, ইউপি নির্বাচনে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী হেলাল উদ্দিনের লোকজন সৌরভকে পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকালে নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের নলশীষা নদীর পাড় থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত সৌরভ উপজেলা জয়পুর ইউনিয়নের চামুন্ডাই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে এবং বিজয়ী ইউপি সদস্য ছানোয়ার হোসেনের ভাতিজা। এঘটনায় পরাজিত প্রার্থী হেলাল উদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

আফতাবগঞ্জ পুলিশ লাইন ইনচার্জ জানায়, আজ বুধবার সকালে উপজেলার নলশীষা নদীর পাড়ে সৌরভের লাশ পরে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে থানা পুলিশ বেলা ১১টায় ঘটনাস্থল থেকে সৌরভের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কালেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

স্থানীয় লোকজন ও নিহত সৌরভের পরিবার জানায়, নির্বাচন শুরুর পর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হেলাল উদ্দিন ও তার লোকজন বিজয়ী ছানোয়ারের লোকজন ও ভাতিজা সৌরভকে নানা রকম হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিলো।

নিহত সৌরভের চাচা ইউপি সদস্য ছানোয়ার হোসেন জানান, নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর মঙ্গলবার সৌরভ তার বন্ধুদের নিয়ে পিকনিকের আয়োজন করে। সন্ধ্যায় হেলালের লোকজন সৌরভকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর সৌরভ আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। আজ বুধবার সকালে তার পায়ের রগ কাটা অবস্থায় নলশীষা নদীর পাড়ে মৃত দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।