সারা বাংলা

দিনাজপুরে রেল ও বাসের টিকিট যেন সোনার হরিণ!

প্রতিনিধি, দিনাজপুর: কর্মজীবীরা পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ঈদ উদ্যাপন করতে শত বিড়ম্বনা মাথায় নিয়েও বাড়িতে এসে একই বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন কর্মক্ষেত্রে ফিরতে। দিনাজপুরে ট্রেনের টিকিট হয়ে উঠেছে সোনার হরিণ আর দ্বিগুণ ভাড়া দিয়েও মিলছে না বাসের টিকিট।
গতকাল শনিবার দিনাজপুরের দূরপাল্লার বাস কাউন্টারগুলোয় উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। বাসের কাউন্টার মাস্টাররা বলছেন, আগামী ২২ তারিখ পর্যন্ত সব টিকিট অগ্রিম বিক্রি হয়ে গেছে। একই অবস্থা রেলওয়ে স্টেশনে। স্টেশনের টিকিট বুকিং মাস্টার এনায়েত হোসেন জানান, আগামী ২১ তারিখ পর্যন্ত সব টিকিট আগাম বিক্রি হয়ে গেছে। তবে যাত্রীরা বলছেন, টিকিট কাউন্টারে অতিরিক্ত টাকা দিলে টিকিট মিলছে।
ঢাকাগামী যাত্রী মহেষপুর গ্রামের আতাউর রহমান জানান, টিকিট কাউন্টারে এসে টিকিট না পেয়ে অতিরিক্ত টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতিতে তাকে টিকিট দেওয়া হয়েছে। এজন্য তাকে গুনতে হয়েছে অতিরিক্ত আরও ৩০০ টাকা। একই কথা জানান ভবানীপুর গ্রামের নজরুল ইসলাম। তিনি জানান, ফুলবাড়ীতে ঢাকাগামী একটি বাস কাউন্টারে টিকিট চেয়ে না পেয়ে এক বাস শ্রমিকের মাধ্যমে ওই বাসের ২০ আগস্টের টিকিট সংগ্রহ করেছেন। এজন্য তাকেও গুনতে হয়েছে অতিরিক্ত ৪০০ টাকা।
ভুক্তভোগী যাত্রীরা অভিযোগ করেন, ঈদ সামনে রেখে বাস ও রেলওয়ের টিকিট কাউন্টারের টিকিট বিক্রেতারা বেনামে টিকিট বুকিং দেখিয়ে রাখেন এবং অতিরিক্ত টাকার বিনিময়ে সেগুলো পরে বিক্রি করেন। এই টিকিটবাণিজ্য দীর্ঘদিন থেকে তারা করে এলেও তা দেখার কেউ নেই।

সর্বশেষ..