কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার লভ্যাংশ ঘোষণা

দুই কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে বিনিয়োগকারীদের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে ব্যাংক খাতের কোম্পানি এক্সপোর্ট ইমপোর্ট (এক্সিম) কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড ও উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এক্সপোর্ট ইমপোর্ট (এক্সিম) কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পনিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে  শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৬৯ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২০ টাকা ৬৭ পয়সা। আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে এক টাকা ৬৫ পয়সা ও ১৯ টাকা ৯৮ পয়সা। আর এই হিসাববছরে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ১১ টাকা ৩৭ পয়সা, আগের বছর যা ছিল চার টাকা ৩৭ পয়সা (লোকসান)। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য আগামী ২৫ আগস্ট বেলা ১১টায় অনলাইনে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ জুন।

এদিকে গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর অপরিবর্তিত থেকে প্রতিটি সর্বশেষ ৮ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ৮ টাকা ৮০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির দুই কোটি দুই লাখ ১৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দিনজুড়ে ২২ লাখ ৪৪ হাজার ৩০০টি শেয়ার মোট ৪৮০ বার হাতবদল হয়। ওইদিন শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৮ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৯ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে কোম্পানির শেয়ারদর ৭ টাকা ৭০ পয়সা থেকে ১১ টাকা ৭০ পয়সায় ওঠানামা করে। ব্যাংক খাতের এ কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) করে এক টাকা ৬৫ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য হয়েছে ১৯ টাকা ৯৮ পয়সা। এর আগের বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) করে দুই টাকা ৩৪ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়ায় ১৯ টাকা ৫৮ পয়সা। ওই সময় কোম্পানিটি করপরবর্তী মুনাফা করে ৩২৯ কোটি ৮৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

‘এ’ ক্যাটেগরির এ কোম্পানিটি ২০০৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। দুই হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ৪১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ এক হাজার ৪০৯ কোটি ৩৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

কোম্পানিটির মোট ১৪১ কোটি ২২ লাখ ৫১ হাজার ৬৮টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা/পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩৭ দশমিক ৯৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ২০ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারী তিন দশমিক ৪৮ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত পাঁচ দশমিক ৩৩ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ১৫।

উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য সাত শতাংশ নগদ ও ২৩ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর আগে ১০ শতাংশ নগদ ও ২৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল, কিন্তু তা সংশোধন করে নতুন করে আবার ঘোষণা দিয়েছে। আলোচিত সময়ে ইপিএস হয়েছে চার টাকা ৫৯ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ৩৮ টাকা ৩৬ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য আগামী ২৫ জুন বেলা ১১টায় অনলাইনে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..