পুঁজিবাজার

দুই কোম্পানি উদ্যোক্তার শেয়ার হস্তান্তর ও কেনার ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের উদ্যোক্তা পরিচালক মাহফুজুর রহমান শেয়ার হস্তান্তর করবেন এবং ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের উদ্যোক্তা জসিম উদ্দীন শেয়ার কিনবেন। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স: কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালক মাহফুজুর রহমান তার কাছে থাকা মোট ১৮ লাখ ১২ হাজার ৯৪৩ শেয়ার থেকে চার লাখ স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেন সিস্টেমের বাইরে পুত্র মাহেম রহমান জিমকে উপহার হিসেবে দেবেন। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে ডিএসইর অনুমোদনসাপেক্ষে উল্লিখিত পরিমাণ শেয়ার হস্তান্তর করবেন।
এদিকে গতকাল ডিএসইতে শেয়ারদর তিন দশমিক ২৪ শতাংশ বা এক টাকা ৫০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ৪৪ টাকা ৮০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৪৫ টাকা ১০ পয়সা। দিনজুড়ে দুই লাখ ২৬ হাজার ৭৪২ শেয়ার মোট ৪৩৮ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর এক কোটি তিন লাখ ১২ হাজার টাকা। দিনজুড়ে শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৪৪ টাকা ৬০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৪৬ টাকা ৬০ পয়সায় হাতবদল হয়। এক বছরে শেয়ারদর ৩৭ টাকা ৭০ পয়সা থেকে ১১২ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।
২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে, যা ২০১৭ সালে ছিল আট শতাংশ নগদ ও চার শতাংশ বোনাস।
‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ২০০৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ২৮ কোটি ৮৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট দুই কোটি ৮৮ লাখ ৪৮ হাজার ৭৪৮ শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের ৩১ দশমিক ৬৮ শতাংশ উদ্যোক্তা বা পরিচালক, প্রতিষ্ঠানিক ১৪ দশমিক ৯ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীর কাছে তিন দশমিক পাঁচ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ৫১ দশমিক ১৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।
ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স: কোম্পানিটির উদ্যোক্তা জসিম উদ্দীন কোম্পানির এক লাখ ১২ হাজার ৯০০ শেয়ার বর্তমান বাজারদরে পাবলিক মার্কেট থেকে আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে কেনার ঘোষণা দিয়েছেন।
২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫২ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১১ টাকা ৪৭ পয়সা।
এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে শেয়ারদর তিন দশমিক ৯৭ শতাংশ বা ৫০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১২ টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১২ টাকা ২০ পয়সা। দিনজুড়ে সাত লাখ ২৮ হাজার ৫১১ শেয়ার মোট ৪১৯ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৮৯ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর ১২ টাকা ১০ পয়সা থেকে ১২ টাকা ৭০ পয়সায় লেনদেন হয়। এক বছরে শেয়ারদর আট টাকা ৫০ পয়সা থেকে ১৭ টাকা ১০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে। কোম্পানিটি ১৯৯৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘বি’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৬৭ কোটি ৬৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ছয় কোটি ২৮ লাখ ১০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট ছয় কোটি ৭৬ লাখ ৫৬ হাজার ৮০৫টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের ৩২ দশমিক ৪৭ শতাংশ উদ্যোক্তা বা পরিচালক, প্রতিষ্ঠানিক তিন দশমিক ৭৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ৬৩ দশমিক ৮০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

সর্বশেষ..