দিনের খবর শেষ পাতা

দুই বছরে নগদের গ্রাহক তিন কোটি

হামিদুর রহমান: যাত্রা শুরুর দুই বছরে প্রায় তিন কোটি গ্রাহক অর্জন করেছে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ। একই সময়ে প্রতিষ্ঠানটির দেশব্যাপী রিটেইলার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় দুই লাখ ৪১ হাজার।

দেশে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে প্রতিযোগিতা বাড়াতে অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোর তুলনায় সাশ্রয়ী সেবা প্রদান করে যাচ্ছে নগদ। প্রতি হাজার টাকা উত্তোলনে চার্জ (ভ্যাটসহ) ১১ টাকা ৪৯ পয়সা। যেখানে বিকাশের চার্জ ১৮ টাকা ৫০ পয়সা ও রকেটের চার্জ ১৮ টাকা।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, এ বছর জানুয়ারির মধ্যে নগদের দৈনিক লেনদেন ২০০ কোটি টাকা অতিক্রম করার থাকলেও তা আরও আগেই সম্পূর্ণ করেছে। অর্থাৎ গেল ডিসেম্বরেই তা বাস্তবায়ন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। বর্তমানে নগদের দৈনিক লেনদেন প্রায় ২২০ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এক ই-মেইল বার্তায় শেয়ার বিজকে জানানো হয়, ‘বর্তমানে নগদের গ্রাহক সংখ্যা প্রায় তিন কোটি। আর সারা দেশে ছড়িয়ে থাকা রিটেইলার সংখ্যা প্রায় দুই লাখ ৪১ হাজার। সারা দেশে আমাদের ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক অনেক শক্তিশালী। সবসময় আমাদের প্রচেষ্টা থাকে গ্রাহককে সর্বোত্তম সেবা দেয়ার। নগদে নতুন অ্যাকাউন্ট নিবন্ধনের বিপরীতে ২০ টাকা রিচার্জে ২০ টাকা বোনাস দেয়া হয়।’

এ অফারটি নিয়ে গ্রাহকদের কিছুটা অভিযোগ থাকলেও নগদ জানায়, ‘এই অফারটি বেশ জনপ্রিয় হওয়ায় অসংখ্য গ্রাহক এটি গ্রহণ করছেন। তবে এই অফারটির অত্যাধিক চাপ থাকায় অনেক সময় নেটওয়ার্কে রেসপন্স করতে একটু সময় নিতে পারে। তারপরও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে তার সমাধান দেয়ার চেষ্টা করছি।’

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে মোট ১৫টি ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ২০১০ সালে মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০১১ সালের ৩১ মার্চ বেসরকারি খাতের ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালুর মধ্য দিয়ে দেশে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের যাত্রা শুরু হয়। এর পরপরই ব্র্যাক ব্যাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু করে বিকাশ। বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং সেবার বাজারের সিংহভাগই বিকাশের দখলে।

সরকারি প্রতিষ্ঠান হলেও বাজারে এসে অল্প সময়েই এগিয়ে গেছে ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘নগদ’। ২০১৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষামূলকভাবে যাত্রা শুরু করে সেবাটি। আর ওই বছর ২৬ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যাত্রা শুরুর দুই বছরেই নগদের গ্রাহক দাঁড়িয়েছে প্রায় তিন কোটি। দৈনিক লেনদেন ছাড়িয়েছে প্রায় ২২০ কোটি টাকা। ডাক বিভাগের সঙ্গে এই সেবা দিচ্ছে থার্ড ওয়েভ টেকনোলজি লিমিটেড। নগদের ৫১ শতাংশ শেয়ার ডাক বিভাগের হাতে, বাকি ৪৯ শতাংশ থার্ড ওয়েভের।

নগদের সেবা বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। ফলে মোবাইল ব্যাংকিং নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের যে নিয়মকানুন রয়েছে, তা তাদের অনুসরণ করতে হয় না। অন্য সব মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম কোনো না কোনো ব্যাংকের সেবা বা সহযোগী প্রতিষ্ঠান। তবে নগদ হচ্ছে সরকারের ডাক বিভাগের সহযোগী। নগদের লেনদেন সীমা বেশি এবং যে কোনো মোবাইল নম্বরে টাকা পাঠানোর সুযোগ থাকায় অল্প সময়ে নগদের বড় ধরনের গ্রাহক প্রবৃদ্ধি হয়েছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..