কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

দুদিন পরই ফের উভয় বাজারে দর সংশোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুই দিন ইতিবাচক থাকার পরে গতকাল ফের উভয় বাজারে শেয়ার বিক্রির প্রবণতা দেখা গেছে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬৮ শতাংশ কোম্পানির  দরপতন হয়। এতে ডিএসইএক্স সূচক ৫৬ পয়েন্ট নেতিবাচক অবস্থানে চলে যায়। বাকি দুই সূচকও নেতিবাচক ছিল। লেনদেন কমে ৫১০ কোটি টাকা হয়েছে। লেনদেনের শুরুতে সূচক ধীরে ধীরে ইতিবাচক হলেও বেলা সোয়া ১১টার পর থেকে বিক্রির চাপ বাড়তে থাকে। ফলে সূচকও ধীরে ধীরে নেমে যায়। শেষ পর্যন্ত প্রধান সূচকের ৫৬ পয়েন্ট পতন হয়। চিটাগাং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।         

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৬ দশমিক ৪৫ পয়েন্ট বা এক দশমিক ২৬ শতাংশ কমে চার হাজার ৪০৯ দশমিক ৬২ পয়েন্টে অবস্থান করে।

ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ১৪ দশমিক ৪৮ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৯ শতাংশ কমে এক হাজার ২৩ দশমিক ৬০ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ১৫ দশমিক ০৫ পয়েন্ট বা  এক দশমিক ০১ শতাংশ কমে এক হাজার ৪৭০ দশমিক ১১ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন দুই হাজার ৯০৮ কোটি ৪৪ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৪ কোটি আট লাখ ৮৩ হাজার টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৫১০ কোটি ৬৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৬০৯ কোটি ৬ লাখ ৭৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৯৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এদিন ২২ কোটি ২৯ লাখ ১৪ হাজার ৬৭০টি শেয়ার এক লাখ ৪৮ হাজার ৩৭০ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৬ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ২৪৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৩টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে সিলভা ফার্মা। কোম্পানিটির ১৩ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে দুই টাকা। এরপরে ওরিয়ন ফার্মার ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। এসকে ট্রিমসের ১০ কোটি ৭৬ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। ভিএফএস থ্রেড ডায়িংয়ের ১০ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে দেড় টাকা। সায়হাম টেক্সটাইলের ১০ কোটি ৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০ পয়সা। এছাড়া লাফার্জহোলসিমের ৯ কোটি ১৮ লাখ টাকা, গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইনের ৯ কোটি, ফার ক্যামিকেলের আট কোটি ৪২ লাখ টাকা, স্কয়ার ফার্মার আট কোটি ৪১ লাখ ও ওরিয়ন ইনফিউশনের আট কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।  

৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ বেড়ে হাক্কানি পাল্প দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। আইসিবি এএমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের ৯ দশমিক ৩৩ শতাংশ, সিভিও পেট্রোক্যামিকেলের দর ৯ দশমিক ০৫ শতাংশ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের দর আট দশমিক ৮২ শতাংশ, স্টান্ডার্ড সিরামিকের দর আট দশমিক ৭৪ শতাংশ, ইউনিয়ন ক্যাপিটালের দর সাত দশমিক ৫৪ শতাংশ, গ্লাক্সোস্মিথক্লাইনের দর চার দশমিক ৬২ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার দশমিক ৪৪ শতাংশ, স্টাইল ক্রাফটের দর চার দশমিক ১৩ শতাংশ ও সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর তিন দশমিক ৫৭ শতাংশ বেড়েছে।         

৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে এমএল ডায়িং। আরএন স্পিনিংয়ের দর আট দশমিক ৬৯ শতাংশ কমেছে। সেন্ট্রাল ফার্মার দর আট দশমিক ২৮ শতাংশ, সিলভা ফার্মার দর আট দশমিক ১৮ শতাংশ, অলিম্পিক এক্সেসরিজের দর সাত দশমিক ৯৫ শতাংশ, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রোর দর সাত দশমিক ৪৪ শতাংশ, ফারইস্ট নিটিং এন্ড ডায়িংয়ের দর সাত দশমিক ২০ শতাংশ, ইয়াকিন পলিমারের দর ছয় দশমিক ৭৬ শতাংশ, ফার ক্যামিকেল ইন্ডাস্ট্রিজের দর ছয় দশমিক ৭২ শতাংশ ও মেট্রো স্পিনিংয়ের দর কমেছে ছয় দশমিক ৬৬ শতাংশ।                   

অন্যদিকে সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক  ১০৭ দশমিক ৭৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩০ শতাংশ কমে আট হাজার ১৭৫ দশমিক ১২ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৭৪ দশমিক ৭৬ পয়েন্ট বা এক দশমিক ২৭ শতাংশ কমে ১৩ হাজার ৪৯১ দশমিক ২৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৪৯ কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৫৯টির, কমেছে ১৬১টির, অপরিবর্তিত ছিল ৫৯টির দর।

সিএসইতে এদিন ২০ কোটি ২২ লাখ ১০ হাজার ৬৩০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ২৪ কোটি ৯ লাখ ৮০ হাজার ৩৯০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে তিন কোটি ৮৭ লাখ টাকা। 

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে জেনেক্স ইনফোসিস। কোম্পানিটির দুই কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা অ্যাডভেন্ট ফার্মার এক কোটি দুই লাখ, ভিএফএস থ্রেডের ৭৩ লাখ, লাফার্জ হোলসিমের ৭০ লাখ, সিভিও পেট্রোক্যামিকেলের ৬৭ লাখ, এমএল ডায়িংয়ের ৬৬ লাখ, এসএস স্টিলের ৬৫ লাখ, সেন্ট্রাল ফার্মার ৫৬ লাখ, অলিম্পিক এক্সেসরিজের ৪৯ লাখ ও এসকে ট্রিমসের ৪৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।  

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..