প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

দুর্নীতির দায়ে ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্টের কারাদণ্ড

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুয়িজ ইনাসিও লুলা দ্য সিলভা দুর্নীতির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় সাড়ে নয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। বুধবার আদালতে বিচারপতি সার্জিও মোরো বলেন ‘লুলা বিলিয়ন ডলার ঘুষ নিয়েছেন একটি অ্যাপার্টমেন্টের জন্য’। তবে এ দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে তার করা আপিলের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তিনি মুক্ত থাকতে পারবেন বলে রায়ে বলেছেন আদালত। খবর বিবিসি, গার্ডিয়ান।

আদালতের রায়ে বলা হয়, রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি পেত্রোব্রাসকে ঠিকাদারি কাজ পেতে সহায়তা করে ইঞ্জিনিয়ারিং ফার্ম ওএএস-এর কাছ থেকে ঘুষ হিসেবে সমুদ্রতীরবর্তী বিলাসবহুল একটি অ্যাপার্টমেন্ট গ্রহণ করেন তিনি। যদিও এমন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন লুলা। তিনি বিচারের রায়কে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেন। তার বিরুদ্ধে আনা আরও চারটি অভিযোগ বিচারাধীন রয়েছে।

২০১১ সাল পর্যন্ত টানা আট বছর ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন লুলা। ২০১৮ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বামপন্থি ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী হয়ে ফের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা রয়েছে তার।

রায় ঘোষণার পর এক বিবৃতিতে লুলার আইনজীবী তাকে নির্দোষ দাবি করে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন।

ওয়ার্কার্স পার্টির প্রধান সিনেটর গ্লেইসি হফমানও রায়ের সমালোচনা করেছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লুলার প্রার্থিতা ঠেকানোর পরিকল্পনায়ই এমনটি করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। আদালতের এ রায়ের বিরুদ্ধে তার দল প্রতিবাদ করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

রিও ডি জেনিরো সমালোচকরা মনে করেন, লুলা এখনও জনপ্রিয় একজন রাজনীতিক এবং তার বিরুদ্ধে আদালতে এ রায় ব্রাজিলকে গভীরভাবে বিভক্ত করে তুলবে।

স্টিল মিলের সাবেক কর্মী লুলা ট্রেড ইউনিয়নের নেতা হিসেবে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। প্রায় অর্ধশতাব্দির মধ্যে ব্রাজিলের প্রথম বামপন্থি নেতা হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।