স্পোর্টস

দুর্নীতি ঠেকাতে আইসিসির কৌশল

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপ ক্রিকেটে কলঙ্কের ছোঁয়া লাগতে দেবে না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি)। দুর্নীতিবাজদের ঠেকাতে বিশেষ কৌশল নিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। ৩০ মে শুরু মাঠের লড়াই। তার আগে থেকেই শুরু হয়ে গেছে প্রস্তুতি। বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া ১০ দেশের জন্য একজন করে দুর্নীতি-দমন কর্মকর্তা নিয়োগ দিচ্ছে আইসিসি। দুর্নীতি মুক্ত বিশ্বকাপ আয়োজনে প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত প্রতিটি দলের সঙ্গেই থাকবেন আইসিসির দুর্নীতি দমন শাখার কর্মকর্তা।
১০ দল অংশ নিলেও এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেটের পরিধি বেশ বড়। পরিধি বাড়ায় থাকছে ম্যাচ ফিক্সিং থেকে শুরু করে একাধিক রকমের দুর্নীতি হওয়ার সম্ভাবনা। পাতানো ম্যাচ কিংবা স্পট ফিক্সিংসহ অন্য দুর্নীতির আশঙ্কা করছে আইসিসি। কিন্তু কঠোর হাতে সব দমন করতে প্রস্তুত ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি।
ব্রিটেনের প্রভাবশালী পত্রিকা ‘দ্য টেলিগ্রাফ’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রস্তুতি ম্যাচের শুরু থেকে প্রতিটি দলের সঙ্গে থাকবেন একজন করে দুর্নীতি-দমন কর্মকর্তা। আসর শেষে দেশের বিমানে ওঠার আগ পর্যন্ত দলের সঙ্গে থাকবেন সেই কর্মকর্তা। প্রতিবেদনে লেখা আছে, ‘অতীতে প্রতিটি ভেন্যুতে একজন করে কর্মকর্তা বরাদ্ধ রাখতো আইসিসির দুর্নীতি-দমন ইউনিট (আকসু)। এ কারণে মাঠের বাইরে এসব কর্মকর্তাদের দেখা পেতেন না ক্রিকেটাররা। এবার এমনটা হবে না।’
জানা গেছে, খেলোয়াড়রা মাঠ কিংবা শপিংমলে যেখানেই যান না কেন, তাদের সঙ্গে থাকবেন এ কর্মকর্তারা। এনজরদারিতে রাখা হবে তাদের। তবে দুর্নীতি থেকে ক্রিকেটকে মুক্ত রাখতে আইসিসি সহযোগিতা চেয়েছে ক্রিকেটারদের। যে কোনো অসংগতি দেখলেই ক্রিকেটারদের আকসু কর্মকর্তাদের শরাণাপন্ন হতে বলা হয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..