সারা বাংলা

ধামইরহাটে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু

প্রতিনিধি, ধামইরহাট (নওগাঁ): নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় বজ্রপাতে  তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে, গতকাল সোমবার বেলা ১টায় উপজেলার বেশিরভাগ এলাকায় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সঙ্গে আকাশে প্রচণ্ড বিদ্যুৎ ঝলকানিও শুরু হয়। এরপর বজ পাত সংঘটিত হয়। এতে উপজেলার উমার ইউনিয়নের অন্তর্গত চকউমর দক্ষিণপাড়া গ্রামের মো. আছির উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রশীদ (৫৯) বাড়ির উত্তর মাঠে কৃষিকাজ করার সময় বজ্রপাতে  ঘটনাস্থলে মারা যান।

এছাড়া একই সময় ধামইরহাট ইউনিয়নের আলতাদিঘি গ্রামের খায়রুল ইসলামের ছেলে রাসেল মাহমুদ (৩১) তার নিজ জমিতে কৃষিকাজ করা অবস্থায় ও জগদল গ্রামের হেলাল হোসেনের মেয়ে বৃষ্টি খাতুন (১৫) মাঠ থেকে গরু নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রপাতে  মারা যান। রাসেল মাহমুদ ও বৃষ্টি খাতুনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল মমিন বজ্রপাতে  তিনজনের মৃত্যু খবর নিশ্চিত করে বলেন, লাশ দাফনের জন্য পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পুলিশের পক্ষে থানায় এ ব্যাপারে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এদিকে জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় পুনঃখননকৃত জলাশয়ে বাস্তবায়িত প্রদর্শনীর জন্য চারটি সমিতিভুক্ত পুকুরে মাছের পোনা ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বেলা ২টায় উপজেলা মৎস্য দপ্তরে চকচান্দিরা সরকারি পুকুর, সাপকুড়ি গুচ্ছগ্রাম, গোরস্তানের পুকুর ও আগ্রাদ্বিগুনের গুচ্ছগ্রামের পুকুরে প্রত্যেকটিতে ১৮০ কেজি করে মাছের পোনা ও পিলেট খাবার বিতরণ করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. সোহেল রানা।

এ সময় মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুস সালাম, কাউন্সিলর মাহবুব আলম বাপ্পী, উপজেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি আবু মুছা স্বপন, সাংবাদিক আব্দুল্লাহ হেল বাকী, শহিদুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, সোহেল হোসেন, উজ্জ্বল হোসেনসহ চারটি পুকুরের ৫০ সুবিধাভোগী উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..