দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

নতুন চার জেলা লকডাউন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে নতুন করে আরো চারটি জেলা লকডাউন করেছে স্থানীয় প্রশাসন। পণ্য পরিবহন ও জরুরি সার্ভিস ছাড়া সব ধরনের যানবাহন ও লোক চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। জেলাগুলোর প্রবেশ ও বের হওয়ার পথে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। এছাড়া সারাদেশে টহল অব্যাহত রেখেছে সেনাবাহিনী।

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন জেলা লকডাউন করা হয়েছে। নতুন করে যেসব জেলায় প্রবেশ ও বের হওয়া বন্ধ করা হয়েছে সেগুলো হলো- রাজশাহী, টাঙ্গাইল, পটুয়াখালী ও মেহেরপুর।

রাজশাহীতে পণ্য পরিবহন ও জরুরি সার্ভিস ছাড়া সব ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মেট্রোপলিটন পুলিশ। নগরীতে প্রবেশ ও বের না হওয়ার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে। এছাড়া নগরীর মনিচত্ত্বর, সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট, কুমারপাড়াসহ কয়েকটি স্থানে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। বাহিরে বের হওয়া প্রায় প্রতিটি মানুষকেই জিজ্ঞাসাবাদের করছেন। অপ্রয়োজনে বাহিরে আসা ব্যক্তিদের ফিরিয়ে দেয়া হয়।

এদিকে সকাল থেকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে কঠোর অবস্থানে ছিলেন সেনা সদস্যরা। এ সময় তারা সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করাসহ যানবাহন চলাচলে শৃঙ্খলা ফেরান। সেই সাথে টিসিবির পণ্য নিতে আসা মানুষদেরও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে লাইনে দাঁড় করান সেনা সদস্যরা। সেনা সদস্যদের পাশাপাশি পুলিশ সদস্যদেরও কড়া তৎপড়তা ছিলো চোখে পড়ার মত।

চট্টগ্রাম মহানগীর পাঁচটি পয়েন্ট ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। বিনা কারণে কোন যানবাহন চলাচল করলে তা ফেরত পাঠানো হচ্ছে। পাশাপাশি অযথা ঘোরাফেরা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে পুলিশ। তবে বিভিন্ন জরুরী সেবা, পন্যপরিবহনের গাড়ি এই কড়াকড়ির বাইরে রয়েছে। শহর থেকে কোন যাত্রীবাহী যান বাইরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। পাশাপাশি শহরেও কোনো যাত্রীবাহী যান প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

এছাড়া শহরে যে কোন জনসমাগম এড়াতে ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মূল রাস্তা ও অলি-গলিতে অহেতুক বের হওয়া মানুষদের ঘরে পাঠিয়ে দিতে কিছুটা কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে পুলিশ।

নারায়ণগঞ্জে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। মানুষের ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। একই সাথে মসজিদে নামাজ আদায়ের বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা মানা হচ্ছে কিনা তাও নজরদারি করছে প্রশাসন।

টাঙ্গাইল শহর লকডাউন করেছে স্থানীয় প্রশাসন। জেলার সীমান্তবর্তী এলাকাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। প্রবেশ বা বের হওয়া নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে কঠোরভাবে।

এছাড়া লকডাউন করা হয়েছে মেহেরপুর জেলা। শহরে প্রবেশদ্বার বন্ধ করে দিয়েছেন পৌর কর্তৃপক্ষ। পটুয়াখালীতে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত জেলায় প্রবেশ বা বের হওয়ায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

মৌলভীবাজারে পণ্য পরিবহন ও জরুরি সার্ভিস ছাড়া সব ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এছাড়া জনসচেতনতা বাড়ানো ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে প্রতিটি জেলায় টহল অব্যাহত রেখেছে সেনাবাহিনী। অযথা ঘোরাফেরা করলে জরিমানাও করা হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..