স্পোর্টস

নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: দেশের মাটিতে টানা ১১ টেস্ট সিরিজ জেতার রেকর্ড রয়েছে ভারতের। আইসিসি টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ দলও তারা। আজ তাদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। স্বাভাবিকভাবেই টাইগারদের জন্য এটি নতুন চ্যালেঞ্জ। তারপরও সফরকারীরা ভয় পাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন নতুন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। উল্টো তিনি বলেছেন, চ্যালেঞ্জ নিতে মুখিয়ে আছি আমরা।

কদিন আগেই ভারতের বিপক্ষে বেশ লড়াই করেই ২-১ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ। কিন্তু আজ থেকে শুরু হতে যাওয়ার ফরম্যাটের নাম যে টেস্ট। যে কারণে এখানে টাইগারদের জন্য চ্যালেঞ্জটা একটু বেশিই থাকছে। তার ওপর আবার নেই সফরকারীদের দুই অভিজ্ঞ তারকা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। তারপরও মানসিক কোনো চাপ নিচ্ছেন না মুমিনুল হক। নতুন এ টেস্ট অধিনায়ক চান স্বাগতিকদের বিপক্ষে পাঁচ দিনের ক্রিকেট উপভোগ করতে, ‘আমাদের হারানোর কিছু নেই। তাই আমরা চাপেও বেশি থাকব না। প্রত্যাশা নেই মানে এই না যে, জয়ের আশায় নেই আমরা। সবাই জিততেই মাঠে নামবে। আমরা ভারতের মাটিতে যে সুযোগটা পাচ্ছি, সেটাকে উপভোগ করতে চাই।’

সাকিব-তামিম নেই। ব্যাপারটি নিয়ে ভাবনা অবশ্য রয়েছে টাইগার শিবিরে। তবে এ টেস্ট সিরিজে যারা রয়েছেন তাদের নিয়ে ভালো করতে চান মুমিনুল, ‘আমার মনে হয়, দুজনের জায়গায় এখানে তিনজন খেলোয়াড় নাই। সাকিব ভাই তো একজনের জায়গায় দুজন, সঙ্গে নেই তামিম ভাইও। হ্যাঁ, একটু চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে যারা নেই, তাদের নিয়ে পড়ে থাকলে তো হবে না। যারা আছেন, তাদের নিয়েই আমাদের খেলতে হবে। এখন সবাই অনেক বেশি মনোযোগী। আমার মনে হয়, সবাই অনেক বেশি দায়িত্ব নিয়ে খেলবেন।’

সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হওয়ায় দেশের ১১তম টেস্ট অধিনায়ক বনে গেছেন মুমিনুল। নতুন অভিজ্ঞতা কেমন লাগছে তার? গতকাল ইন্দোরের হল্কার স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে এ বাঁহাতি বলেন, ‘এটা আমার জন্য অনেক আনন্দের। জুনিয়র হিসেবে এটা আমার জন্য খুব বড় একটা সুযোগ। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া এ রকম সুযোগ সবাই পায় না। তো আমি চাই যে সুযোগটা খুব ভালোভাবে কাজে লাগাব। এ রকম সুযোগ তো সবাই পায় না, তাই আমি এমন কিছু করতে চেষ্টা করব।’

টেস্ট নেতৃত্ব দিতে মুমিনুলকে বেশি উৎসাহ দিচ্ছে সিনিয়র দুই ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিম। তাদের থেকে নিয়মিত শিখেন বলে জানিয়েছেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

ভারতের বিপক্ষে নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে আজ একাদশ কেমন হবে বাংলাদেশের। এ ব্যাপারে তেমন কিছু জানাননি মুমিনুল। তবে দলীয় সূত্রে খবর, একাদশে থাকতে পারেন একাধিক নতুন মুখ। সব মিলিয়ে সাত ব্যাটসম্যান। একজন অলরাউন্ডার ও তিনজন বোলার খেলাতে পারে বাংলাদেশ। এদিকে টাইগারদের কঠিন পরীক্ষায় ফেলতে ভারত একাদশ সাজাতে পারে তিন পেসার ও দুই বিশেষজ্ঞ স্পিনার দিয়ে।

সাকিব-তামিম না থাকলেও বাংলাদেশকে হাল্কাভাবে নিচ্ছে না ভারত। ঘরের মাঠে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে যে ধরনের খেলা করেছিল দলটি, এবারও সেটারই পুনরাবৃত্তি করতে চান রিরাট কোহলি। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এমন হুঙ্কারই দিয়েছেন এ ডানহাতি, ‘বাংলাদেশের কোনো বোলার বা ব্যাটসম্যানকে হালকাভাবে নিচ্ছি না। যখন ওরা ভালো খেলে তখন খুব চৌকস দল হয়ে ওঠে। ওদের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা আছে। আমরা আমাদের প্রক্রিয়া ঠিক রেখে এগোব। ওরা একই ধরনের কন্ডিশনে খেলে অভ্যস্ত। আমরা জানি, ওরা নিজেদের গেম প্ল্যানটা জানে, ওরা জানে কি করতে হবে। ফল পেতে আমাদের ভালো খেলতে হবে, যেমনটা আগের প্রতিটি ম্যাচে খেলেছি।’   এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ-ভারত টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে ৯ বার। যেখানে ৭টিতে জিতেছে ভারত। বাংলাদেশের অর্জন ২টি ড্র। তবে অতীতে পরিসংখ্যান নিয়ে ভাবছে না বাংলাদেশ। উল্টো নিজেদের সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু অর্জন করতে প্রস্তুত মুমিনুলরা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..