এসএমই

নরসিংদীর বাহারি পাটপণ্য সারাদেশে

ভারতে নিজস্ব প্রক্রিয়ায় নতুন উদ্যোগে পাটের বিভিন্ন সংমিশ্রণ হচ্ছে। তাদের তৈরি বিভিন্ন পণ্য, নানা রকমের কাপড় ও নিত্যব্যবহার্য জিনিস বিশ্ববাজারে পাটের গুরুত্ব বাড়িয়ে দিয়েছে। সে তুলনায় আমরা অনেক পিছিয়ে। তবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে পাটের ব্যবহারে আমরা পিছিয়ে নেই। এমন একজন পাটের কারিগর মো. মাহবুবুল হক।

মো. মাহবুবুল হক একজন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। ১৯৯১ সালে পড়ালেখা শেষ করে বান্দরবানে রাবার চাষ শুরু করেন। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সফল হননি প্রথম ব্যবসায়। এরপর মন দেন পাটের তৈরি পণ্যে। পাটশিল্পে আগ্রহের বিষয়ে বলেন, গ্রামবাংলায় মা-চাচিদের বিভিন্ন ধরনের পাটের পণ্য ব্যবহার করা দেখে আগ্রহ জন্মে।

সেই শুরু। ১৯৯৭ সালে পাটের বিভিন্ন ধরনের পণ্য তৈরি করে বিপণন শুরু। এর মধ্যে ছিল ট্রাভেল ব্যাগ, টিফিন ব্যাগ, স্কুল ব্যাগ, ল্যাপটপ ব্যাগ, জালি ব্যাগ, দরজা-জানালার পর্দা, ছেলেদের কোট, মেয়েদের শাল, ওড়না, ব্যাগ। সুন্দর কারুকাজ ও ডিজাইনের পণ্যগুলো অল্প সময়ে হয়ে ওঠে জনপ্রিয়। প্রতিষ্ঠানটি ঘুরে এসে লিখেছেন রাহাতুল ইসলাম

ছেলেদের কোট

ছেলেদের ফ্যাশনেবল পোশাকের মধ্যে অন্যতম অনুষঙ্গ ব্লেজার। বিভিন্ন পার্টি, অফিস-আদালতে পথচলার সঙ্গী এ পোশাক। বাহ্যিক সৌন্দর্যকে ফুটিয়ে তোলে এ পোশাক। সেই ধারণা থেকে মাহবুব জুটেক্সে বিভিন্ন মাপের ব্লেজার তৈরি হয়। এগুলোর দাম ১০০০ থেকে ৩০০০ টাকা।

মেয়েদের শাল

পাটের তৈরি মেয়েদের বিভিন্ন রঙের বাহারি শাল পাওয়া যায়। নানা কারুকাজে তৈরি শালগুলো নারীদের পছন্দ, জানান প্রতিষ্ঠানটির প্রধান মো. মাহবুবুল হক। দাম ৩০০ থেকে ৬০০ টাকা।

ওড়না

মাহবুব জুটেক্সে তৈরি সব ওড়না পাটের। বিভিন্ন রঙের এ পণ্য সংগ্রহ করতে পারবেন ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা দিয়ে।

দরজাজানালার পর্দা

নিজের বাসাবাড়িকে সুন্দরভাবে সাজাতে কে না চান। বাড়ির আভিজাত্য ফুটিয়ে তোলে দরজা-জানালার পর্দা। চাহিদা অনুযায়ী এখানে পাটের ভিন্ন ধরনের পর্দা তৈরি হয়। দামও খুব একটা বেশি নয়, প্রতি গজ ৬০ থেকে ৭০ টাকা।

ট্রাভেল ব্যাগ

ভ্রমণের সঙ্গী ট্রাভেল ব্যাগ। এ ধরনের ব্যাগ ছাড়া ভ্রমণের কথা চিন্তা করা যায় না। মাহবুব জুটেক্সে সোনালি ও চকোলেট রঙের বিভিন্ন আকারের ব্যাগ তৈরি হয়। প্রতিটি ব্যাগে পকেট ও পার্টিশন রয়েছে। সহজে সেখানে মোবাইল ফোনের চার্জার, টুথব্রাশ, মোজা, সাবান, শ্যাম্পুসহ ছোটখাটো দরকারি জিনিস রাখা যায়। প্রতিটি ব্যাগের জন্য গুনতে হবে ৫০০ থেকে এক হাজার টাকা।

ল্যাপটপ ব্যাগ

মাহবুব জুটেক্সে পাটের তৈরি ল্যাপটপ ব্যাগ পাওয়া যায়। আকার অনুযায়ী নানা রঙের এসব ব্যাগের দাম ১০০ থেকে ৩০০ টাকা।

স্কুল ব্যাগ

সব শ্রেণির মানুষের কথা চিন্তা করে ব্যবসা শুরু করেছিলেন মো. মাহবুবুল হক। তার প্রতিষ্ঠানে বাচ্চাদের স্কুল ব্যাগও তৈরি হয়। প্রতিটি ব্যাগের দুই পাশে পানি বোতল রাখার ব্যবস্থা আছে। দাম পড়বে মাত্র ৫০০।

জালি ব্যাগ

মাহবুব জুটেক্সের তৈরি পণ্যগুলো পরিবেশবান্ধবও। পরিবেশ দূষণকারী পলিথিনের বিকল্প হিসেবে এখানে তৈরি হয় পাটের জালি ব্যাগ। নিত্যপণ্য ব্যবহারে প্রয়োজন এসব ব্যাগ। ব্যাগগুলোর ধারণক্ষমতা পাঁচ থেকে সাত কেজি। ফ্যাশনেবল হওয়ায় এ ব্যাগ ব্যবহার করা যায় কাঁচাবাজারসহ যে কোনো কেনাকাটায়। দামও ধরা হয়েছে পলিথিন ব্যাগের কাছাকাছি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..